দিনাজপুরে ৫ম শ্রেনীর ছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগে সাগর (২০) নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আজ রোববার দুপুরে তাকে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ। এর আগে শনিবার দিবাগত রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত সাগর সদর উপজেলার শেখপুরা (শেখ জাহাঙ্গীর মাজারের পশ্চিম পার্শ্বে) আমিনুর হকের ছেলে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কোতয়ালী থানার এসআই বদিউজ্জামান জানিয়েছেন, ধর্ষণের এজাহার পাওয়ার পরই অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত সাগরকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এই ঘটনায় নুর আলম (১৯) নামে অপর এক আসামীকে গ্রেফতারের জন্য পুলিশ তৎপর রয়েছে। নুর আলম একই এলাকার মাসুদ আলমের ছেলে। মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে আসামী একই এলাকার ৫ম শ্রেনীর ছাত্রীকে প্রেম নিবেদন ও উত্যক্ত করে আসছিলেন।

এই কাজে তাকে সহায়তা করেন অপর আসামী নুর আলম। গত ২৫ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে আসামী নুর আলম ভিকটিমকে বাড়ী থেকে ডেকে নিয়ে সাগরের বাড়িতে যায়। ওই সময় আসামী সাগরের বাড়িতে কেউ না থাকায় সাগর তার নিজ কক্ষে বিয়ের প্রলোভন
দিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

পরে ভিকটিম নিজ বাড়িতে এসে পরিবারের সদস্যদের বিষয়টি অবগত করে। এই ঘটনায় গত শনিবার দিবাগত রাতে ভিকটিমের পিতা বাদী হয়ে ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন (সংশোধনী/০৩) আইনের ৯(১)/৩০ জিআর ৭৩৪/২০২০ ধারায় মামলা দায়ের করেন। (মামলা নং-২৪, তাং-১১.১০.২০২০ ইং)।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য