মঙ্গোলিয়ার গোবি মরুভূমিতে দাঁতবিহীন নতুন প্রজাতির ডাইনোসরের সন্ধান পাওয়া গেছে। ডাইনোসরটির প্রতিটি বাহুতে মাত্র দুটি আঙ্গুল রয়েছে।

এডিনবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা ওকসোকো আওয়ারসান নামে এই প্রজাতির ডাইনোসরের একাধিক কঙ্কালের সন্ধান পান এবং বেশ কয়েকটি সম্পূর্ণ কঙ্কাল খুঁজে বের করেছেন। প্রায় একশো মিলিয়ন বছর আগের এই প্রাণিটির পালকযুক্ত, দাঁতবিহীন চোয়াল ছিল।

প্রত্নতাত্ত্বিক দলটি জানায়, এই কঙ্কালগুলো দাঁত ও হাত-পায়ের আঙ্গুল বিশিষ্ট প্রাণিগুলোর বিবর্তনের বিষয়ে গবেষণা করতে ব্যাপক সহায়তা করবে।

তারা বলেন, এই প্রজাতিটি তাদের নিকটাত্মীয়দের তুলনায় প্রতিটি বাহুতে একটি কম আঙুল ছিল, তাদের অভিযোজন ক্ষমতা এতো বেশি ছিল যে তারা ক্রাইটিসিয়াস সময়কালে অন্য প্রাণিগুলোকে পিছিয়ে ফেলতে সক্ষম ছিল।

কয়েকটি সম্পূর্ণ কঙ্কাল বিশ্লেষণ করে গবেষকরা জানান, প্রাণিগুলোর দুই মিটার লম্বা ছিল, তাদের দাঁত-বিহীন চোয়াল ছিল এবং স্বভাবে কিছুটা চঞ্চল ছিল।

এর আগে প্রত্নতাত্ত্বিক গবেষকরা তিন-আঙুল বিশিষ্ট এক ডায়নোসর পরিবারের সন্ধান পেয়েছিল যা ওভারিপেক্টর হিসাবে পরিচিত ছিল। গবেষকরা বলছেন, এই ওভারিপেক্টর প্রজাতি বিবর্তন থেকেই নতুন এই প্রাণির সৃষ্টি।

প্রত্নতাত্ত্বিক দলটি চারটি তরুণ ডায়নোসরদের জীবাশ্মের দেহাবশেষ গবেষণা করে জানায়, অন্যান্য বহু প্রাগৈতিহাসিক প্রজাতির মতো ওকসোকো আওয়ারসান প্রজাতি হিসাবে অনেক বেশি সামাজিক ছিল।

ইউনিভার্সিটি অফ এডিনবার্গের জিওসি এসিয়েন্সের ড. গ্রেগরি ফানস্টন বলেছেন, ৬৮ মিলিয়ন বছর আগে তারা কিভাবে তাদের অভিযোজন ক্ষমতা দিয়ে টিকে ছিল তার পুরোপুরি ধারণা পাবেন এই আবিষ্কার থেকে।

এই গবেষণা দলটিতে রয়েছেন, আলবার্তা বিশ্ববিদ্যালয় এবং কানাডার ফিলিপ জে কুরি ডাইনোসর জাদুঘর, জাপানের হক্কাইডো বিশ্ববিদ্যালয় এবং মঙ্গোলীয় বিজ্ঞান একাডেমির গবেষকরা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য