ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে অসাধু মজুদদারের দখলে পড়েছে আলুর বাজার। আলুর মৌসুমে ১০ টাকা দরে ক্রয়করে মজুদ করলেও, বাজারে কৃতিম সঙ্কট সৃষ্টি করে পাইকারী বাজারে বিক্রি করছে ৩৩ থেকে ৩৬ টাকা দরে।

আলুর খুছরা বাজারে গিয়ে দেখা যায় সবজি হিসেবে ব্যবহারীত প্রতিকেজি আলু বিক্রি হচ্ছে প্রকার ভেদে ৩৮ থেকে ৪০ টাকা দরে। আলু বিক্রেতারা বলছেন পাইকারী বাজারে আলুর দাম বৃদ্ধি পাওয়ায়, তারা বেশি দামে আলু বিক্রি করছেন।

এদিকে আলুর পাইকারী বিক্রেতারা বলছেন মজুদদারেরা হিমাগার থেকে আলু বের না করে, বাজারে কৃতিম সঙ্কট সৃষ্টি করেছে। এতে চাহিদার তুলুনায় বাজারে আলু কম আসায় দিন দিন আলুর বাজার বৃদ্ধি পাওয়া শুরু করেছে।

ফুলবাড়ী কোল্ডইষ্টোরেজ প্রাঃ লিঃ এর ব্যবস্থাপক গোলাম মোস্তোফা বলেন তাদের কোল্ডষ্টোরেজে ৫০ কেজি ওজনের এক লাখ ১০ হাজার ৮৬৫ বস্তা আলু মজুদ ছিল। এর মধ্যে ৫০ কেজি ওজনের ৪ হাজার ১২৬ বস্তা কৃষকের বীজ আলু। বাঁকি এক লাক ছয় হাজার ৭৩০ বস্তা আলু ব্যবসায়ীদের। তিনি বলেন গত দুই মাসে ৩৬ হাজার ৭৩০ বস্তা আলু কোল্ডষ্টোরেজ থেকে বের করেছে ব্যবস্যায়ীরা। বর্তমানে প্রতি ৫০ কেজি ওজনের ৭০ হাজার বস্তা আলূ কোল্ডষ্টোরেজে রয়েছে।

ফুলবাড়ী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রুম্মান আক্তার বলেন গত আলুর মৌসুমে এই উপজেলায় এক হাজার ৮৬০ হেক্টর জমিতে ৩৩ হাজার ৫৭০ মেট্রিকটন আলু উৎপাদন হয়েছে। তিনি বলেন এই উপজেলায় বছরে আলুর চাহিদা রয়েছে ৬ হাজার ৭৫০ মেট্রিকটন।

আলুর মজুদ ও মজুদদারের দখলে বাজার নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার খায়রুর আলম সুমন এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন আলুর অবৈধ্য মজুদদারের দৌরাত্ব ভেঙ্গে দেয়ার জন্য তিনি কাজ শুরু করেছেন ইতোমধ্যে আলুর বাজারসহ কোল্ডষ্টোরেজ পরিদর্শন করেছেন, অবৈধ্য মজুদদারদের চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে তিনি জানান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য