কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলায় জমির বিরোধের জেরে গৃহবধুকে হত্যার দায়ে একজনকে ফাঁসির রায় দিয়েছে আদালত।

কুড়িগ্রামের জেলা ও দায়রা জজ মো. আব্দুল মান্নান মঙ্গলবার এই রায় ঘোষণা করেন।

সাজাপ্রাপ্ত আব্দুস সাত্তার (৫৫) রৌমারী উপজেলার যাদুরচর ইউনিয়নের বাইমমারী গ্রামের বন্দে আলী দেওয়ানীর ছেলে।

এছাড়া অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় এ মামলায় আরও ছয় আসামিকে বেকসুর খালাস দিয়েছে আদালত।

মামলার বিবরণে বলা হয়েছে, বাইমমারী গ্রামে ৫৮ শতক জমি নিয়ে বিরোধের জেরে ২০১০ সালের ৮ নভেম্বর প্রতিবেশীদের মধ্যে সংঘাত সৃষ্টি হয়। সে সময় লাইলী বেগম (৪৫) নামে এক নারীকে শাবল দিয়ে মাথায় আঘাত করেন সাত্তার। স্থানীয়রা তাকে রৌমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলেও ১০ মিনিট পরই তিনি মারা যান।

লাইলীর স্বামী শামছুল হক রৌমারী থানায় ১৪ জনের নাম উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ তদন্ত শেষে সাতজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয় আদালতে। বিচার শেষে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় ছয় আসামিকে বেকসুর খালাশ দেয় আদালত। সাজা পান শুধু সাত্তার।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন পিপি এসএম আব্রাহাম লিংকন। আসামিপক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. আমির আলী।

পিপি আব্রাহাম লিংকন বলেন, রাষ্ট্রপক্ষ এই রায়ে সন্তুষ্ট। এই রায় সমাজে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে কার্যকর ভূমিকা রাখবে। আর অপরাধীরা

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য