ভারতীয় মুসলিমদের ‘উগ্রপন্থি’ বানাতে দেশটির গোয়েন্দা সংস্থাকে বিপুল পরিমাণ অর্থ ঢালছেন তুর্কি সরকার। এর ফলে ভারতীয় মুসলমানদের মধ্যে তুরস্কের প্রতি একটি পজিটিভ মনোভাব জন্মাতে এবং ভারত বিরোধী অবস্থান তৈরি করতে কাজ করবে তর্কি গোয়েন্দারা।

ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়িপ এরদোয়ান তুর্কি গোয়েন্দা সংস্থাকে বিপুল অর্থ যোগান দিচ্ছে যাতে করে তারা ভারতীয় মুসলমানদের বিপথগামী করতে পারে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, আফগানিস্তানে যেভাবে ইসলামিক স্টেট-খোরাসান প্রভিন্সকে (আইএস-কেপি) অর্থায়ন করেছে পাকিস্তান ঠিক সেভাবেই তুরস্ক সিরিয়ায় আইএসআইএস এবং তার সহযোগীদের অর্থায়ন করছে। এর মাধ্যমে গোয়েন্দা সংস্থার অধীনে আত্মসমর্পণ করা আইএস জঙ্গিদের থেকে তুরস্কের প্রচারে নিয়োগ পাওয়া ক্যাডাররা তুর্কির প্রভাব ছড়িয়ে দিতে সহায়তা করবে।

ভারতীয় নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা বলছেন, এরদোয়ান সৌদি আরবের প্রভাব কমিয়ে ইসলামী বিশ্বে নিজেকে সর্বোচ্চ নেতা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে চায়। আর এ জন্য তিনি ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানকে ব্যবহার করছেন। তুরস্কের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান দিয়ানত (তুর্কিস ডিরেক্টরেট অফ রিলেজিয়াস এ্যাফেয়ারস) ইতোমধ্যে ভারতে যথেষ্ট উপস্থিতি নিশ্চিত করতে সক্ষম হয়েছে। অপরদিকে আইএস জঙ্গিদের মদদ দেওয়ার মাধ্যমে ভারতকে বিপদে ফেলতে তৎপরতা শুরু করেছেন এরদোয়ান। বিপদ আসার আগেই তাই ভারতকে উদ্যোগী হয়ে পদক্ষেপ নিতে হবে।

তুর্কি সংস্থা দিয়ানতের মাধ্যমে এরদোয়ান প্রচুর পরিমাণ অর্থ সরবরাহ করছে। যার ফলে ভাল বেতন পাচ্ছেন ভারতীয় মুসলিম ইমামরা। এর ফলে ইমামদের মসজিগুলোতে কাজে লাগাচ্ছে এরগোয়ান। আল আরাবিয়া পোস্ট।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য