মোঃ জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) সংবাদদাতা ॥ নীলফামারীর সৈয়দপুরে কিশোরীকে ধর্ষনে ব্যর্থ হয়ে গলাটিপে মেরে ফেলার চেষ্টার প্রেক্ষিতে এক চার্জার অটো চালকের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ২৬ সেপ্টেম্বর শনিবার রাত ৮ টার দিকে শহরের কাজীপাড়া মন্ডলের মোড় এলাকায়। ঘটনার শিকার কিশোরী সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে চিকিৎসাধিন। রবিবার বিকালে সৈয়দপুর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে অটোচালক রিপনকে গ্রেফতার করেছে।

ভুক্তভোগী কিশোরী  (১৭) জানান, পাশ্ববর্তী সৈয়দপুর-দিনাজপুর মহাসড়ক সংলগ্ন দিনাজপুর জেলার চিরিরবন্দর থানার ফতেজংপুর এলাকায় গড়ে ওঠা ট্রিলিয়ন গার্মেন্টস ফ্যাক্টরীতে (মিনি ইপিজেড) সে কর্মরত।

ঘটনার দিন ফ্যাক্টরী থেকে কাজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে সৈয়দপুর শহরের চাউল মার্কেট এলাকায় পৌছলে প্রবল বর্ষণ শুরু হয়। এসময় পাটোয়ারী পাড়া যাওয়ার জন্য অপেক্ষা করাকালীন একই এলাকার মনসুরের মোড় নিবাসী খয়বরের ছেলে চার্জার অটো চালক রিপন (৩৫) তার অটোতে বাড়ি যাওয়ার জন্য বলে। কিন্তু কিশোরী একা থাকায় তার সাথে যেতে রাজি হয়না। কিন্তু অনেকক্ষণ অপেক্ষা করেও কোন যানবাহন না পেয়ে এবং বৃষ্টির পরিমানও বাড়তে থাকায় এক পর্যায়ে বার বার বলার কারণে রিপনের অটোতেই উঠে বসে।

পথিমধ্যে মন্ডলের মোড় ও মকবুল হোসেন বিএম কলেজের মধ্যস্থানে ঈদগাহ সংলগ্ন ফাঁকা স্থানে এসে রিপন অটো থামিয়ে কিশোরীকে জোড় পূর্বক শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে। এতে বাধা দেয়ায় রিপন তার গলা চেপে ধরে এবং চড় থাপ্পর ও কিলঘুসি মারতে থাকে। এসময় রিপন মেয়েটিকে টেনে হিচড়ে পাশের বাঁশঝাড়ে নিয়ে যেতে থাকে।

অনেক সময় ধ্বস্তাধ্বস্তির মধ্যে চেপে ধরা মুখ থেকে হাত সরিয়ে সজোড়ে চিৎকার করে মেয়েটি। এতে আশে পাশের লোকজন ছুটে আসলে রিপন তাকে ছেড়ে দিয়ে অটো নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে উপস্থিত লোকজন কিশোরীকে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে সেখানে নতুন বিল্ডিংয়ের দ্বিতীয় তলায় ১৭ নম্বর বেডে চিকিৎসারত।

এ ঘটনায় কিশোরীটির মা বাদী হয়ে রিপনকে আসামী করে ধর্ষনের ও গলা চেপে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ দায়ের করেন সৈয়দপুর থানায়। এ অভিযোগের প্রেক্ষিতে সৈয়দপুর থানার এসআই দিলীপ কুমার সঙ্গীয় ফোর্সসহ অভিযান চালিয়ে পাটোয়ারী মোড় থেকে রিপনকে গ্রেফতার করে।

সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল হাসনাত খান বলেন, সকালে কিশোরীর মা বাদী হয়ে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।সে অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ধর্ষণচেষ্টার আসামী রিপনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে নীলফামারী জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। তিনি বলেন, অপরাধ করে কেউই রক্ষা পাবেনা। বিশেষ করে মাদক ও নারী নির্যাতনকারী। এক্ষেত্রে আমরা সর্বদা তৎপর রয়েছি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য