পাঁচ বছর ধরে মামলা লড়ে অবশেষে মাইকে আজান দেওয়ার অধিকার ফিরে পেয়েছেন জার্মানির ওয়ের-এরকেন্সউইক শহরের মুসলিম বাসিন্দারা। স্থানীয়দের দায়ের করা এই সংক্রান্ত মামলাটি বুধবার খারিজ করে দিয়েছে জার্মানির আদালত। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

আদালতের রায়ে বলা হয়েছে, ‘অন্যরাও ধর্মীয় চর্চা করবে এটা প্রতিটি সমাজকে অবশ্যই মানতে হবে। যতক্ষণ কাউকে ধর্মচর্চায় জোর করা হচ্ছে না, ততক্ষণ অভিযোগ জানানোর কোনও সুযোগ নেই।’

২০১৫ সালে দিতিব নামের সেখানকার মুসলিম জনগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে মাইকে আজান দেওয়ার মাধ্যমে অন্যদের ধর্মীয় স্বাধীনতা হরণের অভিযোগ আনা হয়। শহরটির কর্তৃপক্ষ দিতিব জনগোষ্ঠীকে দুপুরের ১৫ মিনিট আগে মসজিদের মাইক ব্যবহারের অনুমতি দিয়ে রেখেছিল।

তবে একটি মসজিদ থেকে মাত্র নয়শ’ মিটার দূরে বসবাসকারী এক দম্পতি শহর কর্তৃপক্ষের ওই অনুমোদনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। তাদের অভিযোগ ছিলো আজানের শব্দের কারণে তাদের ধর্মীয় স্বাধীনতা ক্ষুণ্ন হচ্ছে।

ওই মামলা দায়েরের পর থেকেই শহরটিতে আজান দেওয়া বন্ধ হয়ে যায়। তবে বুধবার সেই দম্পতির যুক্তি খারিজ করে দেয় মুয়েন্সটার শহরের আদালত।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য