দিনাজপুর সংবাদাতাঃ আমদানি বন্ধের কারণে পাইকারি বাজারে ভারতীয় পেঁয়াজের কেজিতে আবারও অন্তত ২০-২৫ টাকা করে বেড়েছে। ফলে আজ বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) দিনাজপুরের হাকিমপুরের হিলি স্থলবন্দরের মোকামে এসব পেঁয়াজ প্রকার ভেদে পাইকারি বিক্রি হচ্ছে ৬০-৭০ টাকায়। আবার ৮০ টাকায় বিক্রির কথাও শোনা গেছে। তবে গত সোমবার পাইকারি বিক্রি হয়েছে ৪৫-৫০ টাকা দরে। একারণে আবারও অস্থির হয়ে উঠছে পেঁয়াজের বাজার।

বন্দরের পেঁয়াজ আমদানিকারক সাইফুল ইসলামসহ কয়েকজন জানান, গত শনিবার ভারতীয় ১১টি ট্রাকে ২৪৬ মেট্রিক টন পেঁয়াজ হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি করা হয়েছে। যার অধিকাংশই পেঁয়াজ ভ্যাপসা গরমে পচে নষ্ট হয়ে গেছে। বাছাই করে কিছু ভালো পেঁয়াজ বের করা হয়েছে। সেগুলি ৭০ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। দাম স্বাভাবিকই আছে বলে তিনি দাবি করেন।

আরও পড়ুন: ভোলায় নদীগর্ভে বিলীন হতে চলেছে চারতলা স্কুল ভবন

বন্দরের বেসরকারি অপারেটর পানামা হিলি পোর্টের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন মল্লিক জানান, ১৯ সেপ্টেম্বরের পর ভারত থেকে এ পর্যন্ত কোন পেঁয়াজ বোঝাই ভারতীয় ট্রাক বন্দরে প্রবেশ করেনি।

এদিকে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা পাইকাররা অভিযোগ করেন, বন্দরের মোকামের কয়েকজন ব্যবসায়ী পেঁয়াজ মজুদ করে রেখেছেন। তারা বেশি দামের আশায় বাজারে পেঁয়াজ ছাড়ছেন না। আমরা কিনতে গেলে বলা হচ্ছে পেঁয়াজ নাই। আবার দাম বেশি দিলে পেঁয়াজ দেওয়া হচ্ছে। তাহলে আমাদেরও তো বেশি দামে বিক্রি করতে হবে। এই ভাবে দাম বেড়ে যাচ্ছে। প্রশাসনের বাজার মনিটরিং ব্যবস্থা না থাকার কারণে ব্যবসায়ীরা দাম বাড়ার কারসাজি করছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য