ইংল্যান্ডে যারা সেল্ফ-আইসোলেশনে থাকার নির্দেশ মানতে অস্বীকার করবে তাদের ১০ হাজার পাউন্ড পর্যন্ত জরিমানা হতে পারে বলে জানিয়েছে সরকার।

করোনাভাইরাস পজিটিভ বা কেউ কোনো রোগীর ঘনিষ্ঠ সংস্পর্শে এসেছিলেন বলে শনাক্ত হয়েছেন তাকে আইসোলেশনে থাকতে হবে, না মানলে জরিমানা গুণতে হবে- ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে ইংল্যান্ডে এ আইনটি কার্যকর হচ্ছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

প্রথমবার আইন ভাঙার জন্য ১০০০ পাউন্ড জরিমানা দিতে হবে, অপরাধের পুনরাবৃত্তি করলে অথবা কাজে যোগ না দিয়ে সেল্ফ-আইসোলেশনে থাকার জন্য তার কর্মীকে চাকরিচ্যুত করার হুমকি দিবেন যে চাকরিদাতা তাকে ১০ হাজার পাউন্ড জরিমানা করা হবে।

এতোদিন সেল্ফ-আইসোলেশনের পরামর্শটি কেবল নির্দেশনার পর্যায়েই ছিল।

নতুন আইনে ক্ষতিগ্রস্ত নিম্ন আয়ের কর্মীদের অন্যান্য সুবিধা দেওয়ার পাশাপাশি ৫০০ পাউন্ড সহায়তা দেওয়ার বিধানও রাখা হয়েছে।

নতুন করে করোনাভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ার পর বিধিনিষেধ কঠোর করার কথা বিবেচনা করছেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন, এই সময়টিতেই শনিবার নতুন এ আইনের কথা জানিয়েছেন তিনি।

এদিন ইংল্যান্ডে ৪৪২২ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছেন, মারা গেছে ২৭ জন।

ইংল্যান্ডের জন্য নতুন এই আইন ঘোষণা করে জনসন বলেছেন, প্রত্যেকের জন্য করোনাভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করার সেরা রাস্তা হচ্ছে আইনগুলো অনুসরণ করা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য