আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার জামায়াত নেতা বেলকা ইউপি চেয়ারম্যান ইব্রাহিম খলিলুল্যাহ ও শান্তিরাম ইউপি চেয়ারম্যান ছামিউল ইসলাম ১৭ সেপ্টেম্বর (বৃহস্পতিবার) সন্ত্রাস দমন আইনের মামলায় হাজিরা দিতে গেলে বিচারক জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে। জেলা ও দায়রা জজ দিলীপ কুমার ভৌমিক শুনানি শেষে তাদের জামিন না মঞ্জুর করেন।

২০১৮ সালে উপজেলার বামনডাঙ্গা ইউনিয়নের একটি সন্ত্রাস দমন আইনের মামলায় বেলকা ইউপি চেয়ারম্যান ইব্রাহিম খলিলুল্যাহ ও শান্তিরাম ইউপি চেয়ারম্যান ছামিউল ইসলামকে আসামি করা হয় (মামলা নং-২৯০/১৮)। দীর্ঘদিন তারা মামলায় হাজিরা না দিয়ে পলাতক ছিল। ছামিউল ইসলাম উপজেলার শান্তিরাম গ্রামের সমেস উদ্দিনের ছেলে এবং বেলকা ডিগ্রী কলেজের সহযোগী অধ্যাপক। ইব্রাহিম খলিলুল্যাহ উপজেলার মধ্যে মধ্য বেলকা গ্রামের জহির উদ্দিনের ছেলে এবং বেলকা এমসি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক।

জেলা জজ কোর্টের পিপি শফিকুল ইসলাম শফিক জানান, নাশকতা মামলায় তারা দীর্ঘদিন পলাতক ছিল। তারা দীর্ঘদিন পলাতক শেষে বৃহস্পতিবার আদালতে হাজিরা জামিনের আবেদন করলে বিচারক তাদের জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য