প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় স্যালির তাণ্ডবে যুক্তরাষ্ট্রের আলাবামা ও ফ্লোরিডার উপকূলে ব্যাপক বন্যা দেখা দিয়েছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিকে ‘ঐতিহাসিক ও সর্বনাশা’ বন্যা হিসেবে আখ্যায়িত করেছে দেশটির ন্যাশনাল হারিকেন সেন্টার।

মেক্সিকো উপসাগরের আলাবামা উপকূল দিয়ে স্থানীয় সময় বুধবার ভোরে ঝড়টি স্থলভাগে উঠে আসে। বিকালের দিকে এটি দুর্বল হয়ে একটি ক্রান্তীয় ঝড়ে পরিণত হয়। তবে স্যালির তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে লাখ লাখ মানুষ।

বিভিন্ন স্থানে বহু গাছপালা উপড়ে পড়েছে। প্রকাণ্ড ওক গাছ উপড়ে পড়ে অনেক জায়গায় বৈদ্যুতিক তার ছিঁড়ে গেছে। ফ্লোরিডার পেন্সাকোলা ও সংলগ্ন এলাকায় বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে পাঁচ লক্ষাধিক ঘরবাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান।

রাস্তাঘাট পানির নিচে তলিয়ে গেছে। আলাবামার অরেঞ্জ সৈকতে পানির সঙ্গে একটি মরদেহ ভেসে আসার কথা নিশ্চিত করেছে পুলিশ। পুলিশ কর্মকর্তা ট্রেন্ট জনসন জানিয়েছেন, দৃশ্যত এটি হারিকেনের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত বলে প্রতীয়মান হচ্ছে। তবে সুনির্দিষ্টভাবে এটি প্রমাণের মতো কোনও উপাদান পাওয়া যায়নি।

জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাসিন্দাদের ঘর থেকে বের না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন আলাবামার গভর্নর কে আইভি। ফ্লোরিডার পেন্সাকোলা পুলিশের পক্ষ থেকেও স্থানীয় বাসিন্দাদের একই রকমের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দা ৩৮ বছরের গ্রান্ট সল্টজ বলেন, বহু বছর পর এমন বাতাস পরিলক্ষিত হয়েছে। সূত্র: বিবিসি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য