চার দশকেরও বেশি সময় আগে দক্ষিণ ভারতের তামিল নাডুর একটি হিন্দু মন্দির থেকে চুরি হওয়া তিনটি ব্রোঞ্জের মূর্তি ভারতীয় কর্তৃপক্ষের কাছে ফিরিয়ে দিয়েছে যুক্তরাজ্য।

১৯৭৮ সালে নাগাপাট্টিনামের একটি বিষ্ণু মন্দির থেকে বিজয়নগর আমলের মোট চারটি মূর্তি চুরি হয়েছিল। চতুর্দশ থেকে সপ্তদশ শতক পর্যন্ত দক্ষিণ ভারতের একাংশ বিজয়নগর সাম্রাজ্যের শাসনাধীন ছিল।

সেসময় ভারতে মূর্তি চুরির ঘটনায় চোরদের শাস্তি হলেও মূর্তিগুলোর খোঁজ মেলেনি। চার দশক পর ২০১৯ সালে যুক্তরাজ্যের এক ব্যবসায়ীর কাছে মূর্তিগুলোর একটি আছে বলে খবর পায় লন্ডনের ভারতীয় হাই কমিশন।

ওই ব্যবসায়ী সেসময় মূর্তিটি বিক্রির উদ্যোগ নিয়েছিলেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

ভারতীয় হাই কমিশনের কাছ থেকে খবর পেয়ে যুক্তরাজ্যের মেট্রপলিটন পুলিশের আর্ট অ্যান্ড অ্যান্টিক ইউনিট ঘটনার তদন্তে নামে। যুক্তরাজ্যের ওই ব্যবসায়ী মূর্তিটি সরল বিশ্বাসে কিনেছিলেন বলেও নিশ্চিত হয় তারা।

পুলিশ জানিয়েছে, ব্রোঞ্জের ওই মূর্তিটি যে ১৯৭৮ সালে ভারতের একটি মন্দির থেকে চুরি হয়েছিল সে সংক্রান্ত প্রমাণ ব্যবসায়ীকে দেখানোর পর তিনি স্বেচ্ছায় ওই মূর্তিটি হস্তান্তরের পাশাপাশি ওই সময় চুরি হওয়া আরও দুটি মূর্তিরও সন্ধান দেন। এ তিনটি মূর্তিই ভারতকে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ভারতীয় হাই কমিশন পরে মূর্তিগুলোর ছবি টুইটারে পোস্ট করেছে। তামিল নাডুর রাজ্য সরকারের হাতে মূর্তিগুলো আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে দেওয়ার সময় ওই ছবিগুলো তোলা হয় বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

যুক্তরাজ্যের মেট্রপলিটন পুলিশ জানিয়েছে, তারা এ ঘটনায় সম্পৃক্ত থাকতে পেরে এবং ব্রোঞ্জের মূর্তিগুলো ভারতকে ফিরিয়ে দিতে পেরে গর্বিত।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য