বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ১,৮১২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন বলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে।

এই সময়ের মধ্যে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন আরও ২৬ জন।

এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হলেন মোট ৩ লাখ ৩৯ হাজার ৩৩২ জন।

আর এই ভাইরাসজনিত রোগ কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে মোট মারা গেলেন ৪,৭৫৯ জন।

বাংলাদেশের স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

আর বাংলাদেশে সর্বশেষ যে ২৬ জনের মৃত্যু হলো, এর ফলে দেশটি করোনাভাইরাসে মৃত্যুর সংখ্যার দিকে দিয়ে চীনকে ছাড়িয়ে গেল।

চীন হলো সেই দেশ যেখানে সর্বপ্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছিল। প্রথম মৃত্যুর ঘটনাটিও ঘটেছিল ওই দেশের উহান শহরে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সর্বশেষ পরিসংখ্যান বলছে, চীনে সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে ৪,৭৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

গতকাল পর্যন্ত বাংলাদেশে মৃত্যুর সংখ্যা ছিল ৪,৭৩৩ জন।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও ২,৫১২ জন। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে মোট সুস্থ হয়েছেন ২ লাখ ৪৩ হাজার ১৫৫ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪,২১৬টি নমুনা পরীক্ষা করে নতুন শনাক্তের এই সংখ্যা পাওয়া গেছে বলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে। পরীক্ষার অনুপাতে কোভিড-১৯ রোগী শনাক্তের হার ১২.৭৫ শতাংশ।

এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৭ লাখ ৪২ হাজার ৬৯৬টি।

যারা মারা গেছেন তাদের মধ্যে পুরুষ ২২ জন এবং নারী ৪ জন।

যুক্তরাষ্ট্রের জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটি অ্যান্ড মেডিসিনের তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত বিশ্বে ২ কোটি ৯০ লাখ ৮ হাজার ৪৯৭ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ।

আর কোভিড-১৯ রোগে সারাবিশ্বে মৃত্যু হয়েছে ৯ লাখ ২৪ হাজার ১২৭ জনের।

সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত এবং মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। আক্রান্তের দিক থেকে এরপরে রয়েছে ভারত, যদিও মৃত্যুর দিক থেকে তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ব্রাজিল।

বিশ্বে সবচেয়ে বেশি আক্রান্তের তালিকায় বাংলাদেশ রয়েছে ১৫ নম্বরে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য