বোচাগঞ্জ (দিনাজপুর) সংবাদাতাঃ ঠকাদারী প্রতিষ্ঠান এর গাফিলতির কারণে গত ১০ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার সকালে সেতাবগঞ্জ সুগার মিলের প্রায় ১৫০ ফিট উচু চিমনি রং করার সময় শিকল ছিড়ে মাটিতে পড়ে গুরুত্ব আহত হয়েছিল মোঃ আতাউর রহমান (৪৫), মোঃ খালেদুর রহমান (৪০) উভয় পিতা কোবাজ উদ্দীন ও মোঃ মুরাদ পিতা আতাউর রহমান সর্ব সাং-আটগাও পাখিপাড়া।

সেদিনই দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসারত অবস্থায় মোঃ আতাউর রহমান (৪৫) এর মৃত্যু হয়েছিল।

এ বিষয়ে সেতাবগঞ্জ সুগার মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেছিলেন, দুর্ঘটনার দায়ভার ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের উপর বর্তাবে।

আজ শনিবার, সকালে সেতাবগঞ্জ সুগার মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এস.এম জাকির হোসেন এর সাথে বোচাগঞ্জ সংবাদাতার কথা হলে তিনি জানান, এ বিষয়ে কোন মামলা হয়নি।

নিহতের পরিবার ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের সাথে আলাপ আলোচনা করে বিষয়টি সমাধান করেছে। নিহতের স্ত্রী মোছাঃ মেহেরুন বেগম বলেছেন এ বিষয়ে আমরা কাউকে দায়ী করিনি, বিধায় আমাদের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা হয়নি।

তবে ভবিষ্যতে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান শ্রমিকদের সু-রক্ষার বিষয়টি নিশ্চিত করে শ্রমিকদের এমন ঝুকি পূর্ণ কাজে নিযুক্ত করবেন এটাই তাদের কাছে আমাদের প্রত্যাশা।

উল্লেখ্য যে, এ ঘটনায় গুরুত্ব আহত হয়ে নিহতের ছোট ভাই মোঃ খালেদুর রহমান (৪০) রংপুর মেডিক্যাল কলেজ ও নিহতের ছেলে মোঃ মুরাদ বোচাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চকিৎসাধীন রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য