দিনাজপুর সংবাদাতাঃ মুদির দোকানে অনুমোদনহীন অবৈধ্য যৌন উত্তেজক সিরাপ রাখার অপরাধে দিনাজপুরের বিরামপুরে তিন ব্যবসায়ীর ১লক্ষ ৬০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় ওই ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান গুলোতে থাকা ২ হাজার বোতল যৌন উত্তেজক সিরাপ ও একটি গোডাউন সিলগালা করা হয়।পরে জব্দকৃত বোতলগুলো আগুনে পুড়িয়ে নষ্ট করা হয়।

শনিবার বেলা সাড়ে তিনটাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যজিস্ট্রেট (ইউএনও) পরিমল কুমার সরকার এই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।এসময় বিরামপুর থানাপুলিশের একটি দল সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

দোকানগুলো হলো, শফিকুল ভ্যারাইটিজ ষ্টোর ৬০০০০ হাজার টাকা , ফরহাদ ষ্টোর ৫০০০০ হাজার টাকা, আরাফাত ষ্টোরকে ৫০০০০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। পরে ওই দোকানগুলো থেকে ২ হাজার বোতল যৌন উত্তেজক সিরাপ জব্দ করে আগুনে পুড়িয়ে দেওয়া হয়। এসময় মালিক না পাওয়ায় গোডাউনটি সিলগালা করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী মেজিস্ট্রেট (ইউএনও) পরিমল কুমার সরকার কালের কণ্ঠকে বলেন,‘দীর্ঘ দিন থেকে বিরামপুরে বেশ কিছু মুদির দোকানে অবৈধ্য ক্ষতিকর অনুমোদনহীন যৌন উত্তেজক সিরাপ বিক্রয় করা হচ্ছিল। এমন অভিযোগে বিরামপুর পৌরশহরের পুরাতন বাজার এলাকায় তিনটি মুদির দোকানে অভিযান চালানো হয়। এসময় ২ হাজারের বেশি যৌন উত্তেজক সিরাপ ও অনুমোদনহীন সেমাই উদ্ধার করা হয়। তিনি বলেন,উপজেলার সব খানেই এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এদিকে,অনলাইনে ট্রেনের টিকিট ক্রয় করে বেশি দামে বিক্রয় করার অভিযোগে সাইদুজ্জামান সুমন(২৮)কে ৫হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সোমবার রাতে বিরামপুর ষ্টেশন এলাকায় সুমন কম্পিউটার নামে একটি প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত তাকে এই জরিমানা করেন। আটক সাইদুজ্জামান সুমন পূর্ব জগন্নাথপুর এলাকার মনিরুজ্জামানের ছেলে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য