বোচাগঞ্জ (দিনাজপুর) সংবাদাতাঃ ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এর গাফিলতির কারণে সেতাবগঞ্জ সুগার মিলের চিমনি থেকে পড়ে প্রাণ গেল এক রংমিস্ত্রী শ্রমিকের।

এ দূর্ঘটনায় আরোও দুই শ্রমিক গুরুত্ব আহত হয়ে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও বোচাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

জানাগেছে, আজ ১০ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার সকালে সেতাবগঞ্জ সুগার মিলের প্রায় ১৫০ ফিট উচু চিমনি রং করার জন্য মোঃ আতাউর রহমান (৪৫), মোঃ খালেদুর রহমান (৪০) উভয় পিতা কোবাজ উদ্দীন ও মোঃ মুরাদ পিতা আতাউর রহমান সর্ব সাং-আটগাও পাখিপাড়াকে নিযুক্ত করেন ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান।

সকাল আনুমানিক ১১টার সময় শ্রমিকরা চিমনি রং করাকালীন সময়ে শিকল ছিড়ে মাটিতে পড়ে গিয়ে গুরুত্ব আহত হয়, এসময় চিনিকলে কর্মরত অন্যান্য শ্রমিকরা আহত শ্রমিকদের সকাল ১১টা ১৫ মিনিটে বোচাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্মরত চিকিৎসক ডাঃ ইমরুল কায়েস গুরুত্বর আহত মোঃ আতাউর রহমান ও মোঃ খালেদুর রহমানকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ট করেন।

আহতদের এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় শ্রমিক আতাউর রহমানের মৃত্যু হয়। দূর্ঘটনার বিষয়ে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান সত্ত্ব বলেন, এ কাজটি আমি তসলিম নামের এক সাব কন্টাক্টরকে দিয়েছিলাম সে আহতদের চিকিৎসার খোজ খবর নিচ্ছে।

এ বিষয়ে সেতাবগঞ্জ সুগার মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এস.এম জাকির হোসেন বলেন, টেন্ডার নোটিসে আমরা উল্লেখ করে দিয়েছি কাজ চলাকালীন সময়ে যদি কোন দূর্ঘটনা ঘটে এ জন্য ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান দায়ী থাকবে। মিল কর্তৃপক্ষ এর কোন দায়ভার গ্রহন করবে না।

উল্লেখ্য যে, শ্রমিকদের সু-রক্ষার বিষয়টি নিশ্চিত না করেই কিভাবে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান প্রায় ১৫০ফিট উচু চিমনি রং করার জন্য শ্রমিকদের নিযুক্ত করেছেন তা খতিয়ে দেখার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন নিহতের স্বজনরা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য