আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে বিয়ের প্রলোভনে এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় থানায় এজাহার দাখিল করা হয়েছে।

অভিযোগ সূত্র জানা যায়, উপজেলার মহদীপুর ইউপি’র গোয়ালপাড়া গ্রামের আব্দুল জলিল ফারাজির ছেলে নারী লোভী লম্পট সোহান ফারাজির (২৪) একই এলাকার বেতকাপা ইউপি’র পার আলমাগাছী গ্রামের রফিকুল ইসলামের মেয়ে স্কুল ছাত্রীর সাথে প্রেম নিবেদন করে। এরই এক পর্যায়ে ওই স্কুল ছাত্রী স্কুলে যাওয়ার পথে তাকে বিয়ের প্রভোলনসহ বিভিন্ন কু-প্রস্তাব দিতে থাকে।

ওই স্কুল ছাত্রী বিষয়টি তার বাবা-মাসহ সোহানের বাবা-মাকে অবগত করে। এরপর সে ক্ষিপ্ত হয়ে ওই স্কুল ছাত্রীকে বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতি প্রদর্শন করে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে দৈহিক মেলা করতে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় গত ৬ আগষ্ট রাত্রি অনুমান সাড়ে ৭টার সময় ওই স্কুল ছাত্রীর বাড়ী পার্শ্বে বাঁশঝাড় সংলগ্ন আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা সোহান তাকে জাপটাইয়া ধরে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

ওই সময় স্কুল ছাত্রীর ডাক-চিৎকারে অন্যান্যরা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে। পরে ওই স্কুল ছাত্রীকে পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরবর্তীতে বিষয়টি নিয়ে সোহানের বাবা-মাসহ আত্মীয়-স্বজন সহিত বিবাহের ব্যবহারে কথা হলে তারা তালবাহানা করতে থাকে।

এব্যাপারে ওই স্কুল ছাত্রীর বাবা রফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে সোহানকে আসামী করে পলাশবাড়ী থানায় একটি এজাহার দাখিল করেন। থানা অফিসার ইনচার্জ মাসুদুর রহমান মাসুদ এ ঘটনায় থানায় এজাহারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য