গাইবান্ধায় মুক্তিপণ দাবিতে শিশু হত্যার দায়ে তিন আসামির যাবজ্জীবন দিয়েছে আদালত।

গাইবান্ধার জেলা ও দায়রা জজ দিলীপ কুমার ভৌমিক বৃহস্পতিবার এ রায় ঘোষণা করেন।

এছাড়া প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানা করেছে আদালত। জরিমানা না দিলে আদালত তাদের আরও ছয় মাসের কারাগারে রাখার আদেশ দিয়েছে।

সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার রোয়াগাঁও গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে মাহফুজার রহমান (২৫), একই গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে শালজার রহমান (২৬) ও আফাজ উদ্দিনের ছেলে মফিজুল ইসলাম (৩৫)।

তাদের মধ্যে মফিজুল ইসলাম পলাতক রয়েছেন। অপর দুইজন গাইবান্ধা জেলা কারাগারে রয়েছেন।

২০১৪ সালের ২১ জানুয়ারি জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার রোয়া গ্রামের মেজবাবুল ইসলামের তিন বছর বয়সী ছেলে রাফসান সামিকে হত্যার ঘটনায় আদালত এই রায় দেয়।

গাইবান্ধার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পিপি শফিকুল ইসলাম মামলার নথির বরাতে জানান, ২০১৪ সালের ২১ জানুয়ারি সামিকে বাড়ি থেকে অপহরণ করা হয়। মুক্তিপণ না দেওয়ায় তাকে গলাটিপে হত্যার পর ধানের খড়ের ঢিপির নিচে লাশ মাটিচাপা দিয়ে রাখে খুনি। ঘটনার একদিন পর পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।

পিপি শফিকুল বলেন, ঘটনায় দুই দিন পর সামির বাবা মেজবাবুল ইসলাম সন্দেহভাজন তিন-চারজনের বিরুদ্ধে গোবিন্দগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ মোবাইল ফোনের মূত্র ধরে তিন আসামিকে শনাক্ত করে। এর চার মাস পর তাদের গ্রেপ্তারও করে পুলিশ। আসামিরা হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

তবে প্রথমে সন্দেহভাজন যাদের নামে মামলা করা হয়, পরে তাদের মামলা থেকে অব্যাহতি দেয় আদালত।

পিপি শফিকুল বলেন, মামলায় ১৯ জনের সাক্ষ্য গ্রহণের পর আদালত এই রায় দিয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য