নিজেদের পাসপোর্ট থেকে ইংরেজিতে লেখা ‘রিপাবলিক অব চায়না’ শব্দগুলো মুছে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তাইওয়ান সরকার। বুধবার তাইওয়ান সরকারের পক্ষ থেকে এমনটি বলা হয়।

তাইওয়ান সরকার বলছে, করোনা মহামারির মধ্যে পাসপোর্টে রিপাবলিক অব চায়না লেখার কারণে তাদের নাগরিদের অন্য দেশে যেতে অনেক সমস্যা হয়েছে। তবে জানা গেছে, ইংরেজিতে লেখা রিপাবলিক অব চায়না মুছে দিলেও পাসপোর্টে চীনা ভাষায় লেখাগুলো পরিবর্তন হবে না।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, আগামী জানুয়ারিতে নতুন পাসপোর্ট সরবরাহ করা শুরু করবে তাইওয়ান সরকার। নতুন পাসপোর্টে রিপাবলিক অব চায়নার পরিবর্তে ইংরেজিতে বড়ো করে তাইওয়ান লেখা থাকবে।

এ নিয়ে তাইওয়ানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জোসেফ উ বলেন, উহান থেকে এই বছরের শুরুতে নিউমোনিয়া ছড়ানোর পর থেকে আমাদের জনগণ আশায় ছিল যে আমরা তাইওয়ানের নামের ওপর জোর দেবো যাতে মানুষ না মনে করে যে তারা চীনের নাগরিক।

চীন তাইওয়ানকে নিজেদের সার্বভৌম অঞ্চল মনে করে। এর আগে তাইওয়ানকে নিজেদের অঞ্চল দাবি করে দ্বীপ রাষ্ট্রটির করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কাছে দিয়েছিলো চীন। কিন্তু তখন তাইওয়ানের পক্ষ থেকে এর প্রতিবাদ জানানো হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য