দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে আদিবাসী বাকপ্রতিবন্ধী কিশোরী(১৩) কে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে শামিম হোসেন(২২) নামের এক মুসলিম যুবকের বিরুদ্ধে।

এই ঘটনায় ঐ কিশোরীর মা বাদী হয়ে শামীম হোসেন কে অভিযুক্ত করে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে নবাবগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।

পুলিশি আজ (১লা সেপ্টেম্বর) ভোরে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত যুবক শামীম হোসেনকে গ্রেফতার করে।

জানা যায়, সোমবার বিকেলে উপজেলার পল্লীতে এ ঘটনা ঘটে। গ্রেফতারকৃত যুবক শামীম হোসেন(২২) উপজেলার পুলবান্ধা গ্রামের শম্ভু হোসেন এর ছেলে।

মামলার এজাহার সুত্রে জানা যায়, সোমবার সকালে বাকপ্রতিবন্ধী কিশোরী কে বাড়িতে রেখে বড় মেয়ের চিকিৎসার পরিবারের সদস্যগণ পাশ্ববর্তী ফুলবাড়ি উপজেলায় যায়। বিকেলে সাড়ে তিনটার দিকে বাকপ্রতিবন্ধী মেয়েকে একা পেয়ে পাশ্ববর্তী পরিত্যাক্ত একটি বাড়িতে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে শামীম হোসেন। পরে তার চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে ধর্ষক পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে নবাবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অশোক কুমার চৌহান জানান, বাকপ্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় ওই কিশোরীর মা থানায় এসে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করে। পরে মঙ্গলবার ভোর সাড়ে চারটার সময় ওই যুবকের নিজবাড়ি থেকে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে। সকালে তাকে দিনাজপুর জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য