কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলায় মানসিক ভারসাম্যহীন একজন ভারতীয় নাগরিককে আটকের পর ভারতীয় সীমান্ত রক্ষীবাহিনীর(বিএসএফ) নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, গত ২৮ আগস্ট শুক্রবার রাত সাড়ে ৮ টায় উপজেলার বেরুবাড়ী ইউনিয়নের খেলারভিটা নতুনচর গ্রামে এক অপরিচিত ব্যক্তি ঘোরাফেরা করছিল। তার কথা বার্তায় সন্দেহ হলে এলাকাবাসী তাকে আটক করে ৯৯৯ এ ফোন দেয়।

সেখান থেকে নাগেশ্বরী থানা পুলিশকে জানানো হয়। পরে এস.আই নুর ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে থানায় নিয়ে আসেন। এ সময় তার অসংলগ্ন আচার আচরণ ও কথাবার্তায় তাকে মানসিক ভারসম্যহীন বলে প্রাথমিকভাবে মনে হয়, কোন কিছুই সে সঠিকভাবে বলতে পারছিল না। তবে তার কাছ থেকে পাওয়া একটি ভারতীয় পরিচয়পত্র থেকে জানা যায়, সে ভারতের উড়িশ্যা প্রদেশের কালাহান্দি জেলার জয়াপাটনা থানার মহাবীরপদা গ্রামের সান্দিয়া নায়েকের ছেলে বরুণ নায়েক।

জিজ্ঞাসাবাদে সে আরো জানায় তার মা আশামতি, ভাই ময়নাল নায়েক, চক্র নায়েক এবং কাকা বয়সিং নায়েক।

সোমবার সকালে এনিয়ে কচাকাটার ধনিরামপুর সীমান্তের ১০৩০ মেইন পিলারের পাশে বিজিবি ও বিএসএফ এক পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

এতে নেতৃত্ব দেন বিজিবির পক্ষে নারায়ণপুর চৌদ্দঘরি বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডার জাহাঙ্গীর আলম, নাগেশ্বরী থানার এস.আই নুর ইসলাম এবং বিএসএফ এর পক্ষে নেতৃত্ব দেন তিস্তার পাড় বিএসএফ ক্যাম্প ইন্সপেক্টর দীপক সিশারা, পুলিশ কন্সটেবল সমির কে.আর রায়।

পরে কচাকাটার ধনীরামপুর সীমান্তে বরুণ নায়েককে বিএসএফ এর হাতে তুলে দেয়া হয়।

নাগেশ্বরী থানা কর্মকর্তা ইনচার্জ (ওসি) রওশন কবীর এর সত্যতা নিশ্চিত করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য