রংপুরের মিঠাপুকুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অক্সিজেনের সংকটের মোশারফ হোসেন নামে (৬৫) এক রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় তাঁর স্বজনসহ উত্তেজিত জনতা ওই হাসপাতাল ঘেরাও করে জরুরি বিভাগ ভাংচুর করেছে। এ সময় তারা অনেক জিনিসপত্র তছনছ করে। রোববার রাত সাড়ে দশটায় এ ঘটনা ঘটে।

হাসপাতালে মারা যাওয়া মোশারফ হোসেন ওই উপজেলার লতিবপুর ইউনিয়নের রশিদপুর গ্রামের বাসিন্দা। এদিকে সোমবার সঠিক কারণ জানতে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

নিহতের স্বজনদের অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, রোববার সন্ধ্যায় নিজ বাড়িতে শারীরিক দুর্বলতা দেখা দেয়ায় মোশারফ হোসেনকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করে তার স্বজনরা। পরে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে জরুরী বিভাগে নেয়া হয়। এতে তাঁর শ্বাসকষ্টসহ নানা জটিলতা দেখা দিলেও দীর্ঘ সময় তাকে অক্সিজেন দেওয়া হয়নি। এ অবস্থায় রাত ৯টার দিকে তিনি মারা যান।

চিকিৎসায় অবহেলার অভিযোগ তুলে নিহতের স্বজনসহ উত্তেজিত এলাকাবাসী বিক্ষোভ ও হাসপাতাল ঘেরাও করেন। তারা জরুরি বিভাগের টেবিল-চেয়ারসহ বিভিন্ন আসবাবপত্র ভাঙচুর করে। এতে গোটা হাসপাতালে ভীতির সৃষ্টি হয়।

মিঠাপুকুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আবদুল হাকিম বলেন, ওই রোগীর চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়। এর মধ্যে শরীরে দ্রুত হাইপো ভলিমিক শক প্রাপ্ত হন এবং তিনি মারা যান। চিকিৎসকের দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগ পাওয়া গেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মিঠাপুকুর থানা ওসি আমিরুজ্জামান বলেন, রোগীর মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে নিহতের স্বজনসহ এলাকাবাসী উত্তেজিত হয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চেয়ার-টেবিল ভাঙচুর করেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য