দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ী পৌর শহরের কানাহার এলাকায় দির্ঘদিন ধরে পানি নিস্কাশন নিয়ে যে সমস্যা ছিলো তা উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মিল্টন এর প্রচেষ্টায় সমাধাণ হলো।

পৌর শহরের কানারহার এলাকার পানি নিস্কাশন নিয়ে দির্ঘদিন ধরে যে সমস্যা সৃষ্টি হয়েছিলো তা গতকাল রোববার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মিল্টনের প্রচেষ্টা এবং উপজেলা প্রশাসনের সহোযগিতায় সমাধান হয়েছে।

এতে ঐ এলাকার প্রায় ১শত একর অনাবাদি হয়ে পড়ে থাকা জমি আবাদের উপযুক্ত হয়ে উঠেছে ।

কানাহার এলাকার মোজাফ্ফর হোসেন,জাহাঙ্গীরসহ একাধিক এলাকাবাসি বলেন,এই এলাকার পানি নিস্কাশন ব্যবস্থা না থাকায় প্রতি বছর বর্ষাকাল এলে বৃষ্টির পানি জমে থাকায়,জমি গুলো আবাদ করা সম্ভব হয় না এবং ঘনবৃষ্টিতে পানি বাড়ী ঘরে প্রবেশ করে জলবদ্ধতা সৃষ্টি হয়,এতে তাদের চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়। এ কারনে তারা দির্ঘদিন ধরে সমস্যায় ভুগছিলেন। বার বার অনেককে বলেও কোনো সুরাহা পাননি তারা।

অবশেষে উপজেলা চেয়ারম্যান এর সরনাপর্ন হয়ে বিষয়টি তাকে জানালে, তিনি তড়িৎ গতিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার খাইরুল আলম ও সহকারি কমিশনার ভূমি কানিজ আফরোজসহ সরেজমিনে ওই এলাকা পরিদর্শন করেন এবং এলাকাবাসির সাথে কথা বলে ফুলবাড়ী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ভিতর দিয়ে পানি নিস্কাশনের জন্য একটি ড্রেন খনন কাজ শুরু করেন । এতে কওে ওই এলাকার দির্ঘদিনের যে পানি নিস্কাশন সমস্যা ছিলো তা সমাধান হলো ।

উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মিল্টন বলেন জনগন তাদের মুল্যবান ভোট দিয়ে আমাকে নির্বাচিত করেছেন। তাই তাদের সুবিধা অসুবিধা দেখা আমার কর্তব্য। তাই তারা যাতে ভালো থাকে সেই জন্য তাদের পাশে আমি সবসময় আছি।

ফুলবাড়ী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল হাসেম বলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মিল্টন এর প্রচেষ্টায় আলোচনার ভিত্তিতে এলাকার মানুষের সমস্যার কথা চিন্তা করে স্কুলের ভিতর দিয়ে এই ড্রেনটি খনন কাজ শুরু করা হয়েছে, এটি পৌরসভার মুল ড্রেনে গিয়ে সংযুক্ত হবে । এই সমাধানের মাধ্যমে এলাকাবাসির দির্ঘদিনের চাওয়া পূর্ণ হলো।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য