দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে ১৫ বছর থেকে এসিল্যান্ড না থাকায় জন দুর্ভোগ চরম আকার ধারন করেছে। জানা যায়, ঘোড়াঘাট উপজেলা একটি কৃষি প্রধান এলাকা।

এখানে শতকরা ৯০ থেকে ৯৫ ভাগ কৃষক। ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খানম বর্তমানে নির্বাহী কর্মকর্তা ও এসিল্যান্ডের দায়িত্ব পালন করতে হিমশিম খাচ্ছে।

ঘোড়াঘাট উপজেলার কৃষকরা ছেলে মেয়েদের বিবাহ অথবা ঋণ পরিশোধের জন্য জমি বিক্রয় করতে গিয়ে খারিজ ছাড়া জমি বিক্রয় করতে পারছেন না।

ঘোড়াঘাট নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খানম এসিল্যান্ডের অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করলেও কৃষক জমির খারিজ করতে গেলে মাসের পর মাস ঘুরতে হচ্ছে।

তাই ঘোড়াঘাট উপজেলায় একজন এসিল্যান্ড দিয়ে জন দূর্ভোগ কমাতে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন এলাকাবাসী।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য