ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ অবিলম্বে ফুলবাড়ী ৬ দফা চুক্তি বাস্তবায়নের দাবী অন্যথায় আবারো গণআন্দোলনের হুশিয়ারী দিয়ে ফুলবাড়ী গণআন্দোলন দিবস উৎযাপন করেছেন তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতিয় কমিটি।

আজ বুধবার ফুলবাড়ী গণআন্দোলন দিবস ও ফুলবাড়ী দিবস উৎযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভায় এই দাবী জানান তেল গ্রাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতিয় কমিটির ফুলবাড়ী থানার আহবায়ক সৈয়দ সাইফুল ইসলাম জুয়েল।

আলোচনা সভায় সৈয়দ সাইফুল ইসলাম জুয়েল এর সভাপতিত্বে অন্নান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতিয় কমিটির কেন্দ্রিয় সদস্য ও ইউনাইটেড কমউনিস্ট লীগ এর সম্বনয়ক মোশারফ হোসেন নান্নু, কেন্দ্রিয় আদিবাসী নেতা রবীন্দ্র নাথ সরেন,ফুলবাড়ী শাখার অন্যতম নেতা হামিদুল হক, ফুলবাড়ী শাখার সাবে সদস্য সচিব কমউনিস্ট পাটির ফুলবাড়ী শাখার সম্পাদক এসএম নুরুজ্জামান জামান ফুলবাড়ী শাখার সদস্য আমিনুল হক ওর্য়াকাস পাটির ফুলবাড়ী শাখার সম্পাদক শফিকুল ইসলাম শিকদার, কমউনিস্ট লীগ এর ফুলবাড়ী শাখার সম্পাদক সঞ্জিব কুমার জিতু, তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতিয় কমিটির ফুলবাড়ী শাখার সদস্য হিমেল মন্ডল প্রমুখ।

সকাল সাড়ে ৯ টায় তেলগ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতিয় কমিটির উদ্যোগে স্থানীয় নিমতলা মোড় থেকে একটি শোক র‌্যালী বের হয়, র‌্যালীটি পৌর শহর প্রদক্ষিন করে ২০০৬ সালের গণআন্দোলনের শহীদদের স্মৃতিস্তম্ভে এসে শেষ হয়। র‌্যালী শেষে শহীদদের স্মৃতিরপ্রতি পুষ্পার্পন করে স্থানীয় নিমতলা মোড়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতিয় কমিটির আলোচনা সভায় বক্তাগণ বলেন সম্প্রতিক বৈশিক দুর্যোহ করোনার কারনে এখনেই কঠোর কর্মসূচি না দেয়া হলেও, করোনা দুর্যোগ শেষ হওয়া মাত্র কঠোর কর্মসূচি দিয়ে ফুলবাড়ীবাসীর সাথে সম্পাদিত ৬ দফা চুক্তি বাস্তবায়ন করতে সরকারকে বাধ্য করা হবে। বক্তাগণ বলেন করোনার সময়েও যদি ফুলবাড়ী কয়লা খনি নিয়ে কোন প্রকার ষড়যন্ত্র করা হলে করোনার মধ্যেও কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবে বলে তাঁরা হুশিয়ারী দেন।

এদিকে ফুলবাড়ী ট্রাজিটি দিবসকে সামনে রেখে তেল গ্রাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতিয় কমিটি ফুলবাড়ী শাখার পাশাপাশি ফুলবাড়ী সম্মিলিত পেশাজিবী সংগঠনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক সমাজিক সংগঠনের উদ্যোগে পৃথক পৃথক ভাবে র‌্যালী ও ২০০৬ সালের ২৬ আগষ্ট ফুলবাড়ী গণআন্দোলনের শহীদদের স্মৃতিরপ্রতি পুষ্পার্পন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উল্লেখ্য ২০০৬ সালের ২৬ আগষ্ট ফুলবাড়ী কয়লা খনি উম্মুক্ত পদ্ধতিতে বাস্তবায়নের প্রতিবাদে এশিয়া এনার্জি নামক একটি বহুজাতিক কোম্পানীর ফুলবাড়ী অফিস ঘেরাও কর্মসূচি পালন করতে গিয়ে, আইন শৃংখলা বাহিনীর গুলিতে আমিন সালেকিন ও তরিকুল নামে তিন যুকব নিহত হয়। একই ঘটনায় আহত হয় আরো তিন শতাধিক মিছিল কারী। ওই সময় ফুলবাড়ী বাসীর গণআন্দোলনের মুখে তৎকালিন সরকার ফুলবাড়ী বাসীর সাথে ৬ দফা একটি সমজোতা চুক্তি করে। এই চুক্ত বাস্তবায়নের লক্ষে তেল গ্রাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতিয় কমিটি ও ফুলবাড়ীবাসী আন্দোল করে আসছে এবং ২৬ আগষ্ট ফুলবাড়ী ট্রাজিডি দিবস হিসেবে পালন করে আসছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য