মোঃ ইউসুফ আলী, আটোয়ারী(পঞ্চগড়) থেকেঃ পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলা প্রাণি সম্পদ দপ্তরের আয়োজনে এবং ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ছাগল উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ প্রকল্প , প্রাণি সম্পদ অধিদপ্তর বাংলাদেশ, ঢাকার ব্যবস্থাপনায় উপজেলা প্রাণি সম্পদ অফিস চত্ত্বরে ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ছাগলের মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার (২৬ আগস্ট) দুপুরে মেলা উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু তাহের মোঃ সামসুজ্জামান। প্রাণি সম্পদ সম্প্রসারণ কর্মকর্তা ডা.পাপ্পু সেন’র সঞ্চালনায় ছাগল পালন খামারীদের উদ্দেশ্যে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ তৌহিদুল ইসলাম।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রেনু একরাম। অনুষ্ঠানে ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ছাগলের মেলা করার উদ্দেশ্য ও খামারীদের করনীয় সম্পর্কে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা. আবুল কালাম আজাদ। বক্তারা বলেন, একটি অস্বচ্ছল পরিবারকে স্বচ্ছল করতে ছাগল পালনের বিকল্প নাই।

ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ছাগল বছরে দুইবার বাচ্চা দেয়। প্রতিবার ২টা থেকে ৪টা বাচ্চা দেয়। এ জাতের ছাগল পালনে সবাইকে উৎসাহী হওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। মূল্যায়ন কমিটি কর্তৃক মেলায় অংশগ্রহনকারী খামারীদের মধ্যে দুই ভাগে ভাগ করা হয়। একটি ছাগী খামারী অপরটি পাঠা খামারী। দু’টি খামারীর মধ্যে পৃথক পৃথকভাবে মূল্যায়ন করা হয়।

পাঠা খামারী হিসেবে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেন উপজেলার তোড়িয়া ইউনিয়নের বামনপাড়া গ্রামের ভারতী রাণী ও ছাগী খামারী হিসেবে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেন রাধানগর ইউনিয়নের ছোটদাপ গ্রামের পশিনা বেগম। শ্রেষ্ঠ খামারীদের হাতে পৃথক পৃথকভাবে ২৪ ইঞ্চি এলইডি টেলিভিশন আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে দিয়ে পুরস্কৃত করা হয়।

এ পুরস্কার ভবিষ্যতে খামারীদের ছাগল পালনে আরো উৎসাহ যোগাবে বলে মন্তব্য করা হয়। এসময় অন্যদের মধ্যে ভেটেনারী সার্জন ( ভিএস) ডা. শামীমা বেগম, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ শামসুর রহমান,প্রাণি সম্পদ দপ্তরের অন্যান্য কর্মকর্তা কর্মচারী সহ গণমাধ্যমকর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য