ভারতে মহারাষ্ট্রের মুম্বাইয়ে পাঁচতলা ভবন ধসের ১৮ ঘন্টারও বেশি সময় পর ধ্বংসস্তুপ থেকে চার বছর বয়সী এক বালককে উদ্ধার করেছে উদ্ধারকর্মীরা।

এত দীর্ঘ সময় চাপা পড়ে থেকেও বিস্ময়করভাবে বেঁচে গেছে শিশুটি। ধ্বংসস্তুপ থেকে কান্নার আওয়াজ শুনে উদ্ধারকর্মীরা তাকে উদ্ধার করে।

ভেঙে পড়া কংক্রীটের স্লাব সরিয়ে হামাগুড়ি দিয়ে ভেতরে ঢুকে বালকটিকে বাইরে বের করে আনেন জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর দুই জওয়ান। দীর্ঘ সময়ের ধকলে সে হয়ে পড়েছিল হতবিহ্বল। দ্রুতই তাকে অ্যাম্বুলেন্সে করে মেডিক্যাল চেকআপের জন্য হাসপাতালে নেওয়া হয়।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শিশুটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়ার সময় নিখোঁজ প্রিয়জনদের নাম ধরে ডাকাডাকি করছিল তাদের আত্মীয়-স্বজনরা। অনেকেই ধ্বংসস্তুপ হাতড়ে জীবিতদের সন্ধান করছিল।

গত সোমবার সন্ধ্যা ৬টা ৫০ মিনিটের দিকে মহারাষ্ট্রের রায়গড় জেলার মাহাদ শহরের কাজলপুর এলাকায় আকস্মিকভাবে ওই পাঁচতলা ভবন ভেঙে পড়ে। এলাকাটি মুম্বাই থেকে ১২০ কিলোমিটার দক্ষিণে।

ভবনটি ভেঙে পড়ার পর থেকে ২৮ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে সেখানে উদ্ধারকাজ চলছে। এ পর্যন্ত উদ্ধার হয়েছে কমপক্ষে ১৩ টি মৃতদেহ।৭৬ জনকে জীবীত পেয়েছে উদ্ধারকর্মীরা। তবে এখনও নিখোঁজ রয়েছে প্রায় ৬ জন।

পাঁচ তলা ওই ভবনটিতে ৪৫টি ফ্ল্যাট ছিল বলছে পুলিশ। কয়েকটি খবরে বলা হয়েছে, বাড়িটি ১০ বছরের পুরোনো।

ঠিক কী কারণে ভবনটি ধসে পড়েছে তা পরিষ্কার হয়নি। তবে গত কয়েকদিন ধরে চলা ভারি বৃষ্টিপাতে কারণে ঘটনাটি ঘটে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য