কুড়িগ্রামে বন্যা কবলিত এলাকায় বিষধর সাপের কামড়ে মৃত্যুর হার কমিয়ে আনতে সিভিল সার্জন ডা. মো: হাবিবুর রহমানের কাছে ৫’শ এন্টি ভেনম ইনজেকশন হস্তান্তর করা হয়েছে। ২৫আগষ্ট মঙ্গলবার দুপুরে স্টার্ট ফান্ড বাংলাদেশ ও ইউকেএইড’র সহায়তায় ইএসডিও আনুষ্ঠানিকভাবে এসব ইনজেকশন হস্তান্তর করেন।

কুড়িগ্রাম জেলার উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া সাম্প্রতিক দীর্ঘ বন্যায় কুড়িগ্রাম সদর, রাজারহাট, উলিপুর, চিলমারি ও ফুলবাড়ি উপজেলায় সাপে কাটা রুগির সংখ্যা আশংকাজনক হারে বৃদ্ধি পায় । এসব রোগীর প্রাণ রক্ষায় এ ইনজেকশন দেয়া হয়েছে বলে জানান ইএসডিও’র কর্মকর্তারা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, ডিপুটি সিভিল সার্জন ডা. এ.এইচ.এম. বোরহান উল ই্সলাম সিদ্দিকী, সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. জীবন কৃষ্ণ রায়সহ ইএসডিও’র কর্মকর্তা মো:আনোয়ার হোসেন, অরুন চন্দ্র অধিকারী, আবু বক্কর সিদ্দিক প্রমূখ।

এন্টি ভেনম ইনজেকশনগুলি উল্লেখিত উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোতে বিনামূল্যে ব্যবহারের জন্য সংরক্ষিত থাকবে।

কুড়িগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. মো: হাবিবুর রহমান জানান, এধরনের সহায়তা কুড়িগ্রামের বন্যাকবলিত সাপে কাটা মানুষদের জীবন রক্ষায় সহায়ক হবে। এ উদ্যোগ গ্রহণের জন্য কুড়িগ্রাম স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে ইএসডিওকে সাধুবাদ জানান তিনি। পাশাপাশি স্টার্ট ফান্ড বাংলাদেশ ও ইউকেএইডকে এ ধরনের সহায়তা আগামীতেও অব্যাহত রাখার আহ্বান।

উল্লেখ্য বন্যার্তদের দুঃখ দুর্দশা লাঘবের জন্য সাহায্যমূলক প্রকল্পের মাধ্যমে “এন্টি ভেনম ইনজেকশন” বিতরণ ছাড়াও ইতোমধ্যে কুড়িগ্রাম জেলার ৫টি উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের ২হাজার ২১৮টি বন্যাকবলিত পরিবারকে ৩ হাজার করে টাকা, হাইজিনকীট, ফার্স্ট এইড কীট এবং করোনাকালে ৫০টি পরিবারের মাঝে সঙ্গ নিরোধের জন্য তাঁবু প্রদান করেছে। এছাড়াও, কার্যক্রমের স্থায়ীত্বশীলতার জন্য প্রকল্প এলাকায় ৩টি ফুড ব্যাংক প্রতিষ্ঠা, ক্যাশ ফর ওয়ার্কের মাধ্যমে দূর্গম এলাকায় পারাপারের জন্য কাঠের সেতু নির্মান হচ্ছে। বিতরণ করা হচ্ছে গো-খাদ্য, সবজিবীজ, ধানেরবীজ, সরিষাবীজ, লাইফ জ্যাকেট, হ্যান্ডমাইক, তাঁবু, ব্লিচিংপাউডার।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য