রংপুর মহানগরীর নীলকণ্ঠ মাস্টারপাড়ায় নিজ বাড়ি থেকে সাজু মিয়া (৪৮) নামের একজন রিকশা চালকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার সকাল ১১ টায় লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসাপাতালে পাঠানো হয়েছে। স্ত্রীর সাথে বনিবনা না হওয়া এবং ব্যাংক একাউন্টে শ্যালককে নমিনি করার জেরে হত্যার পর লাশ ঝুলিয়ে রাখা হয়ে থাকতে পারে প্রাথমিক ধারণা করছে পুলিশ।

এলাকাবাসী ও পরিবারের উদ্ধৃতি দিয়ে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতোয়ালি থানার এসআই কামাল হোসেন জানান, সম্প্রীতি সাজু মিয়া একটি জমি বিক্রয় করেন। ওই জমি বিক্রির সমুদয় টাকা স্ত্রী আরজিনা বেগম(৪২) নিজের নামে ব্যাংকে জমা করেন। তাদেও তিনজন সন্তান আছে। কিন্তু ব্যাংকে স্বামী সন্তানকে নমিনি না করে চাপ প্রয়োগের মাধ্যমে আরজিনা তার নিজ ভাইকে নমিনি করেন। এনিয়ে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। সকালে সাজু মিয়ার লাশ বাড়ির ভেতরের কাঁঠাল গাছে ঝুলতে দেখে খবর দেয়া হয় পুলিশকে। আমরা সকালেই ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশের ছুরুতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছি।

এলাকাবাসির উদ্ধৃতি দিয়ে পুলিশের এই কর্মকর্তা জানান, সাজু মিয়াকে হত্যা করা হয়েছে। নাকি তিনি আত্মহত্যা করেছেন। বিষয়টি ময়না তদন্তের রিপোর্টের পর স্পস্ট হবে। তবে ঘটনার পরি স্ত্রী পালিয়েগেছেন। এলাকাবাসী জানিয়েছেন রাতে শ্যালক ওই বাড়িতে ছিল। আমরা স্ত্রী ও শ্যালককে আটকের চেস্টা করছি। এ ঘটনায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য