আজিজুল ইসলাম বারী, লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় ভারতীয় চোরা কারবারির টাকা নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় আহত জুয়েল মিয়া (১৪) নামে এক শিক্ষার্থী রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এ ঘটনায় দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গতকাল শুক্রবার(২১ আগস্ট) সন্ধ্যায় রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এর আগে গত বুধবার (১৯আগস্ট) উপজেলার উত্তর জাওরানী গ্রামে এই সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে। জুয়েল উপজেলার উত্তর জাওরানী গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে। সে জাওরানী মাদ্রাসার ৮ম শ্রেণীর ছাত্র।

আটককৃতরা হলেন, উপজেলার উত্তর জাওরানী গ্রামের আমির হোসেনের পুত্র আব্দুর রহিম ও আব্দুর রহিমের পুত্র জাহাঙ্গীর।

জানাগেছে, নিহত জুয়েলের ভাই সবুজ ও আটককৃত জাহাঙ্গীর যৌথভাবে ভারতীয় চোরা কারবারি করতো। সবুজ জাহাঙ্গীরের নিকট ভারতীয় গরু পারাপারের ১০ হাজার টাকা পায়। সেই টাকা চাইলে উভয়ের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। এতে উভয় পক্ষের ৫ জন আহত হয়।

এরমধ্যে গুরতর অবস্থায় জুয়েল ও সবুজকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়। সেখানে শুক্রবার বিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জুয়েলের মৃত্যু হয়।

এদিকে জুয়েলের মা রহিমা বেগম বাদি হয়ে হাতীবান্ধা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে আব্দুর রহিম ও জাহাঙ্গীর হোসেন নামে দুজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এ বিষয়ে হাতীবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর ফারুক এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, থানায় মামলা হওয়ার পর দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের শনিবার সকালে লালমনিরহাট জেল হাজতে পাঠানো হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য