একদিকে করোনার তাণ্ডব অন্যদিকে দেশের দক্ষিণ প্রান্তে হওয়া বন্যার জেরে ভয়াবহ খাদ্য সংকটের মুখোমুখি হতে চলেছে চীন। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম এমনটি দাবি করেছে। আর এই কারণেই সম্প্রতি দেশের নাগরিকদের খাবার নষ্ট না করার আহ্বান জানিয়েছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। পাশাপাশি প্রত্যেককে কম খাওয়ার পরামর্শও দিয়েছেন তিনি।

সম্প্রতি চীনের নাগরিকদের উদ্দেশে বক্তব্য রাখতে গিয়ে দেশে যেভাবে প্রতিদিন খাবার নষ্ট হয় তাকে অত্যন্ত বেদনাদায়ক ও কষ্টের বিষয় বলে উল্লেখ করেন জিনপিং। চীনের প্রেসিডেন্ট বলেন, খাদ্য নিরাপত্তার সংকট সম্পর্কে চিনের নাগরিকদের সচেতন হয়ে উঠতে হবে। কারণ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, খাদ্যের অপচয় কমালেই ভবিষ্যতের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে। শুধু প্রেসিডেন্টার আহ্বানই নয়, চীনের সরকারের পক্ষ থেকেও দেশের খাদ্য নিরাপত্তার জন্য বেশকিছু পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে, চীনের দক্ষিণ প্রান্তে হওয়া ভয়াবহ বন্যার ফলে কয়েক হাজার টন খাদ্যশস্য জলে ভেসে গেছে। এর ফলে শিগগিরই দেশটিতে খাদ্যের অভাব দেখা দিতে পারে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। তাই সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন সংগঠনের তরফে খাবারের অপচয় বন্ধ করার অনুরোধ করা হচ্ছে।

ইতোমধ্যে করোনার আঁতুড়ঘর বলে পরিচিত হুবেই প্রদেশের উহান শহরের রেস্টুরেন্টগুলোকে গ্রাহকদের কম খাবার সরবরাহ করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। যদি পাঁচ জন একসঙ্গে এসে খাবার অর্ডার দেন তাহলে তাঁদের চার জনের খাবার ভাগ করে দিতে বলা হয়েছে। ডব্লিউআইওএন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য