নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে প্রেমিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে প্রেমিক মুরাদুজ্জামান রিপনকে(১৯) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় প্রেমিকার মা বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) সকালে কিশোরগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছেন। এদিন দুপুরে পুলিশ ধর্ষণে অভিযুক্ত ওই যুবকে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে প্রেরণ করে। পাশাপাশি জেলা সদর জেনারেল হাসপাতালে ধর্ষণের শিকার ওই তরুণীর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়।

জানা যায়, কিশোরগঞ্জ উপজেলার রনচন্ডি উত্তরপাড়া গ্রামের আজিজার রহমানের ছেলে মুরাদুজ্জামান রিপনের সঙ্গে একই এলাকার ওই তরুণীর গোপনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। ১০ আগস্ট বিকালে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে রিপন ওই তরুণীকে নিয়ে উধাও হয়। ঘটনার দিন সন্ধ্যায় তরুণী বাড়ি ফিরে না আসায় মেয়ের মা কিশোরগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। সাধারণ ডায়েরির সূত্র ধরে বিভিন্ন স্থানে পুলিশ অভিযান চালায়।

এতে রংপুর মেট্রোপলিটন হাজীরহাট থানা পুলিশ রংপুরের হাসনাবাদ মহল্লার একটি বাড়ি থেকে তরুণীকে উদ্ধার ও প্রেমিক রিপনকে আটক করে বুধবার (১২ আগস্ট) রাতে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করে। এ সময় তরুণী বিয়ের প্রলোভনে তাকে প্রেমিক মুরাদুজ্জামান রিপন একাধিকবার জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ তুলে।

এদিকে প্রভাবশালীরা ঘটনাটি ৫০ হাজার টাকায় ফয়সালা করতে প্রেমিকের পরিবারকে হুমকি-ধমকি দেয় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ অবস্থায় মেয়ে নিখোঁজের পূর্বের সাধারণ ডায়েরির সূত্র ধরে বৃহস্পতিবার সকালে মেয়েটির মা বাদী হয়ে ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের (সংশোধনী-৩ এর ৭/৯(১) ধারায় মামলা দায়ের করেন।

কিশোরগঞ্জ থানার নবাগত ওসি আব্দুল আউয়াল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘আসামিকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। পাশাপাশি মেয়েটির ডাক্তারি পরীক্ষা জেলার জেনারেল হাসপাতালে সম্পন্ন করা হয়।’

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য