কুড়িগ্রামের উলিপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে শারমিন আক্তার (১৯) নামে এক গৃহবধু আত্মহত্যা করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে, আজ মঙ্গলবার ভোররাতে উপজেলার ধরনীবাড়ী ইউনিয়নের বাঁকারা দালালীপাড়া গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য সফিয়াল রহমানের কন্যা।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শারমিন আক্তার গত ২ বছর পূর্বে আপন মামাতো ভাই রোমানকে ভালবেসে বিয়ে করেন। রোমান পার্শ্ববতি রাজারহাট উপজেলার বালাকান্দি গ্রামের আব্দুল হাকিমের পূত্র। বিয়ের কিছুদিনের মধ্যে তাদের মাঝে পারিবারিক কলহের সৃষ্টি হলে শারমিন আক্তার অভিমান করে বাবার বাড়িতে ফিরে আসেন। এরপর তিনি বাবার বাড়িতে থেকে ধরনীবাড়ি লতিফ রাজিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় লেখাপড়া করে আসছেন। মঙ্গলবার ভোররাতে সবার অজান্তে ঘর সংংলগ্ন একটি পেঁয়ারা গাছের ডালে গলায় ওড়না পেঁছিয়ে আত্মহত্যা করেন।

পরে বাড়ির লোকজন পেঁয়ারা গাছ থেকে তার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেন। উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোয়াজ্জেম হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, প্রাথমিক সুরতহাল রিপোর্টে আত্মহত্যার আলামত পাওয়া গেছে। পরিবারের কোন অভিযোগ না থাকায় লাশ দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য