রংপুরে স্বাস্থ্যসেবা খাতের শৃঙ্খলা ফেরাতে হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনেস্টিক সেন্টারগুলোতে অভিযান অব্যহত রেখেছে জেলা প্রশাসন ও আইন শৃঙ্খলাবাহিনী।

এরই অংশ হিসেবে অনুমোদন না থাকা, অসঙ্গতিপূর্ণ চিকিৎসা কার্যক্রম ও মেডিকেল বর্জ্য ব্যবস্থাপনা না থাকা চার প্রতিষ্ঠানকে ২ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সোমবার (২৭ জুলাই) দুপুরে রংপুর নগরীর ধাপ এলাকায় জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আফরিন জাহানের নেতৃত্ব ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। এতে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কর্মকর্তা ও সিভিল সার্জনের প্রতিনিধি অংশ নেন।

অভিযানে আপডেট ক্লিনিক, ল্যাব এইড ডায়েগনস্টিক সেন্টার, রোজ হাসপাতাল ও ইসলামি ব্যাংক কমিউনিটি হাসপাতালকে ২ লাখ টাকা অর্থদ- প্রদান করে আদালত। একই সাথে প্রতিষ্ঠানগুলোকে মৌখিকভাবে সর্তক করা হয়।

সিভিল সার্জনের অনুমোদন না নিয়ে অসঙ্গতিপূর্ণভাবে চিকিৎসা প্রদান ও মেডিকেল বর্জ্য ব্যবস্থাপনা না থাকাসহ বিভিন্ন অভিযোগে ওই চার প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করা হয়েছে বলে জানান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আফরিন জাহান।

তিনি জানান, জেলা প্রশাসনের আওতায় নিবন্ধনহীন হাসপাতাল ও ক্লিনিকের বিরুদ্ধে অভিযান শুরুর পর থেকে শোনা যাচ্ছে ৭০ শতাংশ হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের নিবন্ধন নেই। বিভিন্নভাবে রোগীদের সাথে প্রতারণা ও হয়রানি করে এসব প্রতিষ্ঠান অনিয়নের মধ্য দিয়ে চলছে।স্বাস্থ্যসেবা খাতের এই বিশৃঙ্খলা রোধে অভিযান অব্যহত থাকবে।

এদিকে রংপুর জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, নগরীতে মাত্র ২২৯ টি বেসরকারি ক্লিনিক, হাসপাতাল ও ডায়াগনেস্টিক সেন্টারের অনুমোদন থাকলেও প্রায় সাড়ে পাঁচশ ক্লিনিক ডায়গনেস্টিক সেন্টার এখানে রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য