সীমান্ত অঞ্চলে নজরদারি অভিযান চালানোর সময় লেবাননের অভ্যন্তরে একটি ইসরায়েলি ড্রোন বিধ্বস্ত হয়েছে।

রোববার গভীর রাতে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনীর একজন মুখপাত্র একথা জানিয়েছেন।

“কোনো তথ্য ফাঁস হওয়ার মতো উদ্বেগজনক কিছু ঘটেনি,” বলেছেন তিনি, জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

প্রযুক্তিগত সমস্যার কারণে ড্রোনটি বিধ্বস্ত হয়েছে বলে ইসরায়েলি গণমাধ্যম চ্যানেল টুয়েলভের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

গত সোমবার সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কের কাছে লেবাননের শিয়া গোষ্ঠী হিজবুল্লাহর একজন যোদ্ধা নিহত হন। ইসরায়েলি হামলায় তিনি নিহত হয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ ঘটনার পর থেকে ইসরায়েল-সিরিয়া-লেবানন সীমান্তে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এ ঘটনার জেরে গোলান মালভূমির সিরীয় এলাকা থেকে মালভূমিটির ইসরায়েল অধিকৃত এলাকায় মর্টার হামলা চালানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে ইসরায়েল। কথিত এ হামলার জবাবে শুক্রবার রাতে সিরিয়ার দক্ষিণাঞ্চলীয় কুনেইত্রা এলাকায় দেশটির সেনাবাহিনীর তিনটি অবস্থানে হামলা চালায় কয়েকটি ইসরায়েলি হেলিকপ্টার।

নিয়ন্ত্রিত ট্যাঙ্ক-বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করে চালানো ইসরায়েলি হামলায় দুই সৈন্য সামান্য আহত এবং ওই এলাকার বনভূমিতে আগুন ধরে যায় বলে জানিয়েছে সিরিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তা সংস্থা।

লেবানন ও সিরিয়ার সীমান্তে উত্তেজনা বৃদ্ধিতে দেশের উত্তরাঞ্চলে সেনা শক্তি বৃদ্ধি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য