নীলফামারীর ডোমার উপজেলার গোমনাতি ইউনিয়নে জমি নিয়ে দুই পক্ষের মারামারিতে বিমাতা ছোট ভাই রুহুল আমীনের(৫০) মৃত্যু হয়েছে।

এতে শনিবার বিকাল সাড়ে চার টার দিকে বড় ভাইসহ তিন জনকে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠিয়েছে ডোমার থানা পুলিশ। শুক্রবার বিকালে ইউনিয়নের পন্ডিতপাড়া এলাকায় জমি নিয়ে বিমাতা দুই ভাইয়ের লোকজনদের মধ্যে মারামারি হয়। এতে ছোটভাই রুহুল আমীন গুরুত্বর আহত হলে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে আট টার দিকে তার মৃত্যু হয়। রাত ১২ টার দিকে পুলিশ রংপুর হতে বড় ভাই মোতালেব হোসেন (৬০), মোতালেব এর স্ত্রী আলেমা (৫৫) ও তার ছেলে আশেক এলাহী (৪৫) কে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।

মৃত রুহুল আমীন ও আসামীদের বাড়ি উপজেলা গোমনাতি ইউনিয়নের পন্ডিত পাড়া এলাকায়। এ বিষয়ে নিহতের ছেলে কাওছার আলী বাদী হতে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে।

মামলা সুত্রে জানা গেছে, দীর্ঘ্যদিন ধরে জমি নিয়ে বিমাতা দুই ভাইয়ের মধ্যে গন্ডোগোল চলছিল। শুক্রবার (২৪ জুলাই) সকাল ১১ টার দিকে রুহল আমীন ট্রাকটর দিয়ে জমি চাষ করছিল। এ সময় মোতালেব কিছু লোক নিয়ে বাঁধা দেয়। এতে দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি শুরু হয়। রড, বাঁশ ও ধারালো ছুরির আঘাতে রুহুল আমীনসহ কয়েকজন গুরুত্বর আহত হয়।

বাকিদের উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলেও রুহুল আমীনকে গুরুত্বর অবস্থায় সন্ধ্যায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাত সাড়ে আট টার দিকে রুহুল আমীনের মৃত্যু হয়।

ডোমার থানার অফিসার্স ইনচার্জ মো: মোস্তাফিজার রহমান মৃত্যু ও গ্রেফতারে বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ময়না তদন্ত শেষে লাশ পরিবারের মাঝে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ পর্যন্ত তিন জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামীদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান চলছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য