দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের খানসামায় বিনামূল্যে উন্নত জাতের পাকচুং ঘাসের কাটিং ৩০০ ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক খামারীর মাঝে বিতরণ করা হয়েছে। এ ঘাস খেয়ে গরু অতিদ্রুত মোটাতাজা হয় ও অধিক দুধ দেয়।

বুধবার সকাল ১১টায় কৃষিক্ষেত্রে অবদানের স্বীকৃতিস্বরুপ প্রধানমন্ত্রী পুরষ্কার প্রাপ্ত জয়নাল এগ্রো ফার্মের স্বতাধিকারী মোঃ জয়নাল আবেদীনের ব্যক্তি উদ্যোগে খানসামার সিট আলোকডিহিতে তাঁর নিজ খামারে এ বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ বিপুল চক্রবর্তী।

এবিষয়ে প্রধানমন্ত্রী পুরস্কারপ্রাপ্ত মোঃ জয়নাল আবেদীন বলেন, এ ঘাস খেলে গরু অতিদ্রুত মোটাতাজা হয় ও অধিক দুধ দেয় প্রাণীসম্পদ বিভাগের এমন পরামর্শে কয়েকবছর আগে প্রায় ২ একর জমিতে পাকচুং ঘাস রোপণ করি। যা দিয়ে পরবর্তীতে আমার খামারের গরুগুলোকে খাওয়াই ও বিক্রি করি। কিন্তু বর্তমানে গো-খাদ্যের দাম বেশি হওয়ায় ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক খামারীদের কথা চিন্তা করে এই উদ্যোগটি গ্রহন করেছি। আগামীতে এ ঘাস কাটিং বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

খানসামা উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ বিপুল চক্রবর্তী এ উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে বলেন, জয়নাল এগ্রো ফার্মের মালিক জয়নাল আবেদীন একজন সফল খামারী। তিনি নিজ উদ্যোগে খামারে গরু, পোল্ট্রি, মাছ ও উন্নতজাতের ঘাসের চাষ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। গবাদীপ্রাণির জন্য ঘাষের প্রয়োজনীয়তা অনেক। খামারীরা এ ঘাস চাষ করে গরুকে খাওয়ালে অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হবে ও উৎপাদন বৃদ্ধি পাবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য