দিনাজপুর সংবাদাতাঃ করোনাভাইরাস(কোভিড-১৯) এর কারণে দীর্ঘ দিন যাবত বন্ধকৃত দিনাজপুর জেলা ডেকোরেটর ও কমিউনিটি সেন্টার সমূহ ২১ জুলাই মঙ্গলবার দুপুরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করার অনুমতি চেয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মোঃ মাহমুদুল আলম-এর মাধ্যম স্মারক লিপি প্রদান করেন দিনাজপুর জেলা ডেকোরেটর ও কমিউনিটি সেন্টার মালিক সমিতি। স্মারক লিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুর জেলা ডেকোরেটর ও কমিউনিটি সেন্টার মালিক সমিতির সভাপতি মোঃ মোবারক বাবু, সহ-সভাপতি সৈয়দ মনতাজুল ইসলাম(মনতা), সাধারণ সম্পাদক মোঃ কামরুল ইসলাম কামাল সহ অন্যান্য সদস্য ও কারিগর, বাবুর্চি ও পরিবেশনকারীর দল।

স্মারক লিপিতে উল্লেখ থাকে যে, গত ১৯ মার্চ ২০২০ইং হতে অদ্যবদি পর্যন্ত দীর্ঘ ৪ মাস ধরে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’র যুগান্তকারী নির্দেশনা মেনে সরকারের পক্ষে সমর্থন জানিয়ে দেশ ও জাতির স্বার্থে আমাদের প্রতিষ্ঠান সমূহ বন্ধ আছে। এ যাবত দেশের অনেক প্রতিষ্ঠান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’র ঘোষিত প্রণোদনা সহযোগিতা পেয়েছে। কিন্তু দেশের কোথাও কোন ডেকোরেটর ও কমিউনিটি সেন্টার মালিকগণ এবং কর্মচারি সহযোগিতা পায়নি।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এমতাবস্থায় আমাদের ডেকোরেটর ও কমিউনিটি সেন্টারসহ প্রায় ২৬০০ মালিক এবং কয়েক হাজার কর্মচারি এই প্রতিষ্ঠান সমূহের সাথে জরিত এবং সকলের আয়ের উৎস বেতন ভাতা না থাকায় করোনা মহামারির এই সংকটময় সময়ে পরিবার পরিজন নিয়ে আমরা সকলে মানবেতর জীবণ যাপন করছি। মালিক ও কর্মচারিগণ লোকলজ্জার কারণে না পারছে কোথাও হাত পাততে, না পারছে মাসের পর মাস দুঃসহ কষ্ট সহ্য করতে। আমরা বিভিন্ন সময়ে সরকারের পক্ষ থেকে যৌতুক,মাদক,সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে তথা জনকল্যাণকর বিষয়ে গণসচেতনতা মূলক অনুষ্ঠানে আমাদের ডেকোরেটর ও কমিউনিটি সেন্টার বিনা ভাড়ায় সেবা কার্যক্রম চালিয়েছি এবং সরকারের বিভিন্ন বার্তা গণমানুষের কাছে পৌছে দিয়েছি বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে।

উক্ত স্মারক লিপিতে দাবী সমূহের মধ্যে রয়েছে (১)সরকারের সকল স্বাস্থ্যবিধি মেনে শীঘ্যই আমাদের ডেকোরেটর ও কমিউনিটি সেন্টার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সমূহ পরিচালনা করার অনুমতি প্রদান। (২) মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’র পক্ষ থেকে ঘোষিত প্রণোদনা প্রদান এবং (৩) ডেকোরেটর ও কমিউনিটি সেন্টারের সম্পৃক্ত কারিগর, বাবুর্চি ও পরিবেশনকারীসহ সকল কর্মচারিদের আর্থিক অনুদান সহযোগিতা প্রদান।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য