যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ায় নতুন পার্লামেন্ট গঠনের জন্য রোববার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সরকার নিয়ন্ত্রিত অংশে স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে সাতটায় ৭ হাজার ৪শ’ ভোট কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ শুরুর কথা রয়েছে। এই প্রথম সাবেক সরকার বিরোধীদের নিয়ন্ত্রিত শক্ত ঘাঁটিগুলোতেও নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

গত নয় বছর আগে যুদ্ধ শুরুর পর এটি এ ধরণের তৃতীয় নির্বাচন। ধারণা করা হচ্ছে পার্লামন্টের ২৫০ আসনের বেশিরভাগেই প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের বাথ পার্টি ও তার মিত্ররা বিজয়ী হবে।

এদিকে নির্বাচনের প্রাক্কালে রাজধানী দামেস্কে বোমা হামলায় একজন নিহত ও অপর একজন আহত হয়েছে। রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সানা এ কথা জানায়। করোনা ভাইরাসের কারণে এপ্রিল থেকে এ নির্বাচন দু’দফা পেছানো হয়।

নির্বাচনটি এমন এক সময়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে যখন অধিকাংশ সিরীয়বাসী তাদের জীবনের ব্যয়ভার বাড়া নিয়ে উদ্বিগ্ন। তাই নির্বাচনে অধিকাংশ প্রার্থী মুদ্রাস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ এবং যুদ্ধে ভেঙে পড়া অবকাঠামো পুনর্গঠনের অঙ্গীকার করেছেন।

সিরিয়ায় বিগত বছর গুলোর যুদ্ধে তিন লাখ ৮০ হাজারেরও বেশি লোক প্রাণ হারিয়েছে। লাখ লাখ লোক বিদেশে চলে গেছে। তারা ভোট দিতে পারছে না।

এদিকে এই প্রথমবারের মতো সরকারের পুনর্দখলকৃত পূর্বাঞ্চলীয় ঘৌতা ও ইদলিব প্রদেশের দক্ষিণাঞ্চলেও ভোট হচ্ছে।

রাশিয়ার সমর্থনে একের পর এক সামরিক বিজয়ের পর সিরীয় সরকারের নিয়ন্ত্রণে এখন দেশটির প্রায় ৭০ ভাগ এলাকা রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য