মোঃ লিহাজ উদ্দীন মানিক, বোদা পঞ্চগড় থেকেঃ পঞ্চগড়ের বোদায় মডেল বানানোর কথা বলে এক নারীকে গণধর্ষণের অভিযোগে গত বুধবার দিবাগত রাতে সাজ্জাদ হোসেন মিলন (৩৫) ও ধর্ষণের সহায়তা করার অভিযোগে লাকি বেগম (৪৮) নামে এক নারী সহ ২ জনকে আটক করে বোদা থানা পুলিশ। এ ঘটনার সাথে জড়িত অন্যান্য আসামীরা পলাতক রয়েছে।

আটককৃত সাজ্জাদ হোসেন মিলন পৌর শহরের ইসলামবাগ ঝিনুকনগর এলাকার রফিকুল ইসলামের ছেলে ও লাকী বেগম থানাপাড়া এলাকার নজরুল ইসলামের স্ত্রী। পুলিশ সুত্রে জানা যায়, সাজ্জাদ হোসেন মিলন বিভিন্ন মিউজিক ভিডিও এডিটর হিসাবে কাজ করতেন বলে প্রচার করেন।

এদিকে পাবনার জেলার ভাংগুরা থানার পাথরঘাটা এলাকা থেকে ভিকটিম ঐ নারীকে বিভিন্ন মিউজিক ভিডিওতে মডেলিং এর কথা বলে সাজ্জাদ হোসেন মিলনের সাথে ঐ নারীর মডেলিং করার চুক্তি হয়। পরে মিলন ঐ নারীকে বোদায় আসতে বললে তার কথা মতো ঐ নারী গত মঙ্গলবার বাসযোগে বোদায় আসেন। পরে তাকে আটককৃত আসামী লাকীর বাড়িতে রেখে জোরপূর্বক ভাবে গণধর্ষণ করে বলে ভিকটিম অভিযোগ করেন।

গত বুধবার রাতে মিলন ঐ নারীসহ ৩ জনের নামে উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো অনেককে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেন। এ ব্যপারে বোদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) আবু সায়েম মিয়া জানান, গণ ধর্ষণের শিকার ঐ নারী থানায় মামলা দায়ের করলে রাতেই ২ জন আসামীকে আটক করা হয়।

আটককৃতদের বৃহস্পতিবার জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য