উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও ভারী বর্ষণে কুড়িগ্রামের চিলমারীতে ব্রহ্মপুত্র নদে পানি বৃদ্ধি পেয়ে ২৫ হাজার মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। পুটিমারী কাঁজল ডাঙ্গা, কাঁচকোল বাজার এলাকা, ফকিরেরহাট, কড়াই বরিশাল, উত্তর খাউরিয়া, দক্ষিণ খাউরিয়া, রমনা গুড়াতি পাড়া, জোড়গাছ, পাত্রখাতা, ফেইচকা, বৈলমনদিয়ার খাতা, চর মুদাফৎকালিকাপুর এলাকার বাড়ি-ঘরে পানি উঠে মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে।

পানিবন্দী লোকেরা পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) বাঁধ, আশ্রয়ণ কেন্দ্র, কেসি রাস্তার ধারসহ বিভিন্ন উচু স্থানে আশ্রয় নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে। প্রথম দফা বন্যার পানি সরতে না সরতে দ্বিতীয় দফা বন্যায় রোপা আমন বীজতলা ও সবজি ক্ষেত পানিতে তলিয়ে গিয়ে ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়েছে।

পাউবোর উপ-সহকারী প্রকৌশলী আব্দুল হান্নান জানান, ব্রহ্মপুত্র নদের চিলমারী পয়েন্টে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৯ সেন্টিমিটার পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপৎসীমার ৫৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য