দিনাজপুর ব্যাটালিয়নের (৪২ বিজিবি) অধীনস্থ দিনাজপুর জেলার বিরল থানার অর্ন্তগত ধর্মজান বিওপির টহলদল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সীমান্ত পিলার ৩১৯/৪-এস হতে আনুমানিক ২০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে সীটসুন্দরা গ্রামের পুকুরপাড় হতে ৬৯০ বোতল ভারতীয় ফেন্সিডিল জব্দ করতে সক্ষম হয়, যার সিজার মূল্য ২,৭৬,০০০/- টাকা।

ফেন্সিডিল উদ্ধারকালীন মাদক পাচারকারীরা দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় টর্চ লাইটের আলোতে ৮ জন মাদক পাচারকfরীকে টহলদল সনাক্ত করতে সক্ষম হয়।

পলাতক আসামীদের নাম ঠিকানাঃ (১)হব্বুর হোসেন (৪০), পিতা-মৃত লতিফ, গ্রাম-মধ্যবনগাও, (২) এনাজুল হোসেন(২৭), পিতা-রহিম উদ্দিন, গ্রাম-শুক্রপারা মধ্যবনগাও, (৩)এমরান মিয়া(২৮), পিতা-মোকলেছ মিয়া, গ্রামঃ মধ্যবনগাও,(৪)সামসুদ্দিন (৩৮), পিতা-মংলু মোহাম্মদ, গ্রাম-শুক্রপারা মধ্যবনগাও, (৫)মিজানুর রহমান (২৮), পিতা-সিদ্দিক আলি, গ্রাম-মধ্যবনগাও, (৬)মিরাজুল মিয়া (২৮), পিতা-জামাল উদ্দিন, গ্রাম-গারাপারা মধ্যবনগাও, (৭)কেরামুল মিয়া (৩৫), পিতা-ময়ুর উদ্দিন গ্রাম মধ্য মধ্যবনগাও এবং (৮) নাজমুল মিয়া (৩৮), পিতা-ডাব্লু মিয়া, গ্রামঃ মধ্যবনগাও সকলের পোষ্ট-কামদেবপুর, থানা-বিরল এবং জেলা-দিনাজপুর।

জব্দকৃত ফেন্সিডিল বিরল থানায় জমাকরতঃ পলাতক আসামীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করার কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

উল্লেখ্য, আসামীদের মধ্যে হব্বুর হোসেন এবং এনাজুল হোসেন চিহ্নিত মাদক পাচারকারী।বর্তমানে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে বিজিবি অত্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে সীমান্ত এলাকায় টহল পরিচালনায় তৎপর থাকায় এ ধরনের ফেন্সিডিলের বড় চালান জব্দ করতে সক্ষম হচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য