কুড়িগ্রামে ভারি বৃষ্টি ও উজানের ঢলে মাত্র ৫ দিনের মাথায় আবারও নতুন করে ধরলা ও তিস্তার পানি বিপদসীমা ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে দ্বিতীয়দফা বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। শনিবার বিকেল ৩টায় ধরলার পানি নতুন করে বেড়ে সেতু পয়েন্টে বিপদসীমার ৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে এবং তিস্তার পানি কাউনিয়া পয়েন্টে বিপদসীমার ২ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে।

কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আরিফুল ইসলাম জানান, উজানে ভারি বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকায় আগামী কয়েকদিন জেলার সবকটি নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকবে। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকলে মধ্য জুলাইয়ে জেলার নদ-নদী অববাহিকায় আবারও একটি মাঝারি বন্যা দেখা দিয়ে তা ৭-১০ দিন স্থায়ী হতে পারে।

কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক মো:.রেজাউল করিম জানান, সম্ভাব্য বন্যা পরিস্থিতি মোকাবিলায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে যাবতীয় প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। খাদ্য সহায়তা হিসেবে চাল ও শুকনো খাবারসহ শিশু খাদ্য সরবরাহের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। এছাড়াও গবাদি পশুর খাদ্য সহায়তা দেওয়ার জন্যও বরাদ্দ পাওয়া গেছে যা প্রয়োজন সাপেক্ষে বণ্টন করা হবে। উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করে প্রয়োজনীয় সবধরণের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য