চলতি মাসের প্রথমদিকে ভারতের উত্তর প্রদেশে আট পুলিশ হত্যার ঘটনায় জড়িত বলে কথিত কুখ্যাত সন্ত্রাসী বিকাশ দুবেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ওই ঘটনার পর পাঁচ দিন ধরে পালিয়ে বেড়াচ্ছিলেন দুবে, বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকালে মধ্যপ্রদেশের একটি মন্দির থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম।

রাজ্যটির উজ্জয়িনী এলাকার মহাকাল মন্দির থেকে প্রার্থনা সেরে বের হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তাকে আটক করে নিরাপত্তা রক্ষীরা।

সড়ক পথে প্রায় ৭০০ কিলোমিটার ভ্রমণ করে উজ্জয়িনীতে এসেছিলেন দুবে। তার আগে পাঁচ দিন ধরে ভারতের চারটি রাজ্যজুড়ে তাকে তন্ন তন্ন করে খুঁজেছে পুলিশ।

গত শুক্রবার ভোররাতে উত্তর প্রদেশের কানপুরে ৬০ মামলার আসামী বিকাশকে ধরতে তার গ্রামে যায় পুলিশের একটি দল। সেখানে রাস্তার ওপর বুলডোজার ফেলে আগেই রাস্তা বন্ধ করে রেখেছিল বিকাশের সহযোগীরা। পুলিশ গাড়ি থেকে নেমে গ্রামে ঢোকার মুখে তিন দিক থেকে তাদের ওপর গুলি শুরু করে বিকাশের বাহিনী।

এতে একজন ডেপুটি পুলিশ সুপারসহ আট পুলিশ সদস্য নিহত হন। এ ঘটনার পর থেকেই বিকাশকে হন্যে হয়ে খুঁজতে শুরু করে পুলিশ।

ভারতের গণামধ্যমের বরাতে বিবিসি জানিয়েছে, উজ্জয়িনীর একটি দোকান থেকে পূজার সামগ্রী কেনার সময় দোকানদার তাকে চিনে ফেলেন, তিনিই মন্দিদের নিরাপত্তা রক্ষীদের সতর্ক করে দেন।

পূজা সেরে দুবে মন্দির থেকে বের হওয়ার সময় রক্ষীরা তার পরিচয় জিজ্ঞেস করে। সে ভুয়া একটি পরিচয়পত্র দেখায়। রক্ষীদের সঙ্গে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে খবর পেয়ে পুলিশ এসে তাকে গ্রেপ্তার করে।

“সে ভুয়া পরিচয়পত্র দেখায় তারপর মারামারি লেগে যায়। এরপর রক্ষীরা তাকে পুলিশের কাছে নিয়ে আসে,” একজন পুলিশ কর্মকর্তা এমনটি বলেছেন বলে এনডিটিভি নিউজ নেটওয়ার্কের প্রতিবেদনে দেওয়া উদ্ধৃতিতে বলা হয়েছে।

বুধবার দুবেকে হরিয়ানা রাজ্যের ফরিদাবাদের একটি হোটেলে দেখা গিয়েছিল বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণামধ্যম।

পুলিশ জানিয়েছে, ফরিদাবাদ থেকে রাজস্থানের কোটায় যায় দুবে, সেখানে থেকে উজ্জয়িনীতে যায়। এ সময় তার সঙ্গে দুই সহযোগী ও তার নিজের গাড়ি ছিল বলে জানিয়েছে তারা।

কানপুরে দুবের গ্রাম বিকারুতে পুলিশের ওপর হামলার পর থেকে পুলিশের এনকাউন্টারে তার তিন সহযোগী নিহত হয়েছে। বিকারু গ্রাম যে থানার অধীনে তার প্রধান কর্মকর্তাকে দুবের সঙ্গে সংযোগ আছে সন্দেহে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য