কুড়িগ্রাম সদর উপজেলায় কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় অটোরিকশাচালক শাহ আলম (৪০) নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন চারজন।

মঙ্গলবার সকাল ৬টার দিকে কুড়িগ্রাম-রংপুর সড়কের ত্রিমোহনী এলাকায় (হেনাইজের তল) এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত শাহ আলম উপজেলার কাঁঠালবাড়ী ইউনিয়নের তালুক কালোয়া গ্রামের ঘোপাটারী এলাকার নুরুল ইসলাম সরকারের ছেলে।

আহতরা হলেন- আয়শা বেগম (৫০), তার ছেলে আতিকুর রহমান বুলেট (৩০), পুত্রবধূ নাসিমা রহমান লিলি (২৭) এবং নাতনি দুপুর (৪)। তাদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কুড়িগ্রাম সদর থানার ওসি মাহফুজার রহমান জানান, সকাল সাড়ে ৬টার দিকে ট্রেনে ঢাকা যাওয়ার উদ্দেশ্যে অটোরিকশায় কুড়িগ্রাম আসছিলেন যাত্রীরা।

এ সময় অটোরিকশাকে রংপুরগামী পত্রিকাবাহী একটি কাভার্ডভ্যান ধাক্কা দেয়।

অটোরিকশাটি দুমড়েমুচড়ে গেলে চালকসহ একই পরিবারের চার যাত্রী গুরুতর আহত হন।

স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে প্রথমে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অটোরিকশাচালক শাহ আলমের মৃত্যু হয়।

কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার রেদওয়ান ফেরদৌস সজিব জানান, সড়ক দুর্ঘটনায় আহত পাঁচ রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়। চিকিৎসাধীন একজনের মৃত্যু হয়। শিশুসহ চারজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য