দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলায় বিআরটিসি বাসের ধাক্কায় একটি অটোরিকশার চালকসহ সাত আরোহী নিহত হয়েছেন।

বীরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল মতিন প্রধান জানান, দিনাজপুর-ঠাকুরগাঁও মহাসড়কের ২৫ মাইল এলাকায় সোমবার দুপুরে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন নিহতরা হলেন নাসরিন বেগম (৪৫), তার মেয়ে রুপা (৮), আবুল হোসেন (৫৫), তার স্ত্রী আসমা খাতুন (৪৫), তাদের মেয়ে নামিয়া (৮), নার্গিস (২৭) ও অটোরিকশার চালক।

দুর্ঘটনার পর দুই ঘণ্টা দিনাজপুর-ঠাকুরগাঁও মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকে।

ওসি আব্দুল মতিন প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে বলেন, বেলা পৌনে ৩টার দিকে পঞ্চগড় থেকে ছেড়ে আসা রংপুরগামী বিআরটিসি বাসটি ২৫ মাইল এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে চারজন মারা যান।

“ভ্যান চালকসহ আরেক যাত্রীকে বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়; পরে সেখানেই তাদের মৃত্যু হয়। এছাড়া দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর আরেক নারী মারা যান।”

দুর্ঘটনার পর বিআরটিসি বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে যায় বলে জানান ওসি মতিন।

ওসি আরও জানান, দুর্ঘটনার পর স্থানীয় কয়েকশ মানুষ সড়ক অবরোধ করলে দুই ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

আবুল হোসেনের বাড়ি দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলার দেবীপুর গ্রামে এবং নাসরিন বেগমের বাড়ি বীরগঞ্জের ভাবকীর পাচপীর গ্রামে।

বাসের চালক ও সহকারী পালিয়ে গেছে বলে জানান ওসি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য