দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে অমানষিক নির্যাতনের শিকার হওয়া তাসলিমা আকতার (২২) নামে এক গৃহ বধূকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। বর্তমানে সে নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কবমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

সে উপজেলার বিনোদনগর ইউনিয়নের নারায়নপুর(টাপু)গ্রামের নাদিম সরোয়ারের স্ত্রী।

তাসলিমার পিতা উপজেলার মতিহারা গ্রামের আবুল কাশেম জানান তার মেয়ে তাসলিমাকে ৪ বছর পূর্বে নারায়নপুর(টাপু)গ্রামের মৃত আমজাদ হোসেনের ছেলে নাদিম সরোয়ারের সাথে বিয়ে দেই।

এর মধ্যে তাদেরর সংসারে একটি ছেলে সন্তানের জন্ম হয় যার বয়স বর্তমানে আড়াই বছর।

বিয়ের পর থেকে তাসলিমাকে যৌতুকের দাবীতে তার স্বামী শাশুড়ী ননদ সহ পরিবারে সদস্যরা নানা ভাবে শারিরিক ও মানষিক ভাবে নির্যাতন করে আসছিল।

ইতিমধ্যে এ বিষয়ে একাধিক বার শালিস বৈঠকও হয়েছে। মেয়ের সূখের জন্য চিন্তা করে তাকে সংসার করার সূযোগ দেয়া হয়েছে। এরপরেও একই ভাবে তারা নির্যাতন করতেই থাকে।

গতকাল সকালে তাসলিমাকে তার স্বামী পরিবারের সদস্যদের উস্কানীতে বেদম মারপিট করে গুরুতর আহত করে বিনা চিকিৎসায় ফেলে রাখে।

মেয়েকে মারপিটের সংবাদ পেয়ে থানা পুলিশের সহযোগিতায় ওই দিনই বিকালে মেয়েকে উদ্ধার করে নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করাই।

এ বিষয়ে নবাবগঞ্জ থানার ওসি অশোক কুমার চৌহান জানান গৃহবধূর চিকিৎসা শেষে মামলা গ্রহন করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য