দিনাজপুর সংবাদাতাঃ করোনার ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে প্রতিরোধে সরকারের গৃহীত পদক্ষেপে দীর্ঘদিন লকডাউনে আদালত বন্ধ থাকায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিচার কার্যক্রমকে ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে চালু করেছে। প্রতিনিয়ত এই ভার্চুয়াল পদ্ধতি বিচার কার্য ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ন ভ’মিকা পালন করছে।

বৃহস্পতিবার কোর্ট ইন্সপেক্টর মোঃ ইসরাইল হোসেন এর তথ্য অনুসারে দিনাজপুরে চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত মোট ৬১ টি মামলার শুনানী হয়। তার মধ্যে ৯টি মামলায় ১২ জন আসামি জামিন পেয়েছে আর বাকী মামলা গুলোতে আদালত কর্তৃক জামিন না মঞ্জুর হয়েছে।

এ দিকে জেলা ও দায়রা জজ আদালতে রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ২০ টি মামলার শুনানি হয়। এর মধ্যে ১১টি মামলায় ১২ জন জামিন পেয়েছে আর বাকী মামলা গুলোতে আদালত কর্তৃক জামিন না মঞ্জুর হয়েছে।

নারী ও শিশু নির্যাাতন ট্রাইবুনাল আদালতে রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত কোন শুনানি হয় নাই কারন জামিনের জন্য কোন আসামী পক্ষ এই কোর্টে কোন আবেদন করেনি।

দিনাজপুর জেলার পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এ্যাড. রবিউল ইসলাম রবি ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের মামলা গুলোতে রাষ্ট্রপক্ষের সহযোগিতা করেন আর চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মামলা গুলোতে পুলিশের কোর্ট ইন্সপেক্টর মোঃ ইসরাইল হোসেন রাষ্ট্রপক্ষের সহযোগিতা করেন। পাশাপাশি আসামীদের পক্ষে স্ব স্ব আইনজীবীগন মামলার ডিফেন্স করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য