করাচিতে পাকিস্তান স্টক এক্সচেঞ্জে জঙ্গি হামলায় দুই বেসামরিকসহ ছয় জন নিহত হয়েছেন।

সোমবারের এ ঘটনায় নিরাপত্তা বাহিনী চার হামলাকারীর সবাইকে হত্যা করেছে বলে ডন নিউজ জানিয়েছে।

প্রাথমিক প্রতিবেদনগুলেোত বলা হয়েছে, স্থানীয় সময় সকাল ১০টার একটু আগে চার জঙ্গি তাদের গাড়ি থেকে নেমে গ্রেনেডের বিস্ফোরণ ঘটায়, এরপর স্টক এক্সচেঞ্জ ভবনে প্রবেশ করে এলোপাতাড়ি গুলি চলায়। এতে অন্তত দুই জন বেসামরিক নিহত ও আরও বহু লোক আহত হয়েছেন।

পুলিশ সার্জন ডাঃ কারার আহমেদ আব্বাসি জানান, পাঁচটি মৃতদেহ ও আহত সাত জনকে ডাঃ রুথ পফু সিভিল হাসপাতাল করাচিতে নেওয়া হয়েছে।

সিন্ধু রেঞ্জার্স বলেছে, হামলা শুরু হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই পুলিশ ও রেঞ্জার্সের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় আর চার হামলাকারীর সবাইকে হত্যা করে।

এখন ওই এলাকায় একটি ‘ক্লিয়ারেন্স অপারেশন’ চলছে বলে জানিয়েছে তারা। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র ও হ্যান্ড গ্রেনেড উদ্ধার করারও কথাও জানিয়েছে।

পাকিস্তান স্টক এক্সচেঞ্জের (পিএসএক্স) ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফাররুখ খান হামলার ঘটনাটিকে ‘গুরুতর ও দুর্ভাগ্যজনক’ বলে বর্ণনা করেছেন।

করোনাভাইরাসজনিত পরিস্থিতির কারণে স্টক এক্সচেঞ্জ ভবনে স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় লোকজন কম ছিল বলে জিও নিউজকে জানিয়েছেন তিনি।

সিন্ধু প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী মুরাদ আলী শাহ্ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে হামলাটিকে ‘জাতীয় নিরাপত্তা ও অর্থনীতির ওপর হামলার অনুরূপ’ বলে মন্তব্য করেছেন।

“রাষ্ট্রবিরোধী পক্ষগুলো ভাইরাস পরিস্থিতির সুযোগ নেয়ার চেষ্টা করছে’ বলে এক বিবৃতিতে অভিযোগ করেছেন তিনি।

হামলা শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার জন্য পুলিশ ও রেঞ্জার্সের প্রশংসা করেছেন তিনি। পাশাপাশি আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোকে সজাগ থাকার নির্দেশ দিয়েছেন।

সিন্ধুর গর্ভনর ইমরান ইসমাইলও হামলার নিন্দা জানিয়ে ‘যে কোনো মূল্যে সিন্ধুকে রক্ষা করবেন’ বলে প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য