যুক্তরাষ্ট্রের তিন পারিবারিক আটককেন্দ্রে থাকা অভিবাসনপ্রত্যাশী শিশুদের মুক্তির নির্দেশ দিয়ে রুল জারি করেছে আদালত। করোনা মহামারিকে কেন্দ্র করে গতকাল ক্যালিফোর্নিয়ার ডিস্ট্রিক্ট কোর্টের ফেডারেল বিচারপতি ডলি এম গি জুলাইয়ের মাঝামাঝি সময়ের মধ্যে তাদের মুক্তি দেওয়ার আদেশ জারি করেন। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন-এর প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসন ও শুল্ক কার্যকর বিভাগ কর্তৃক তিনটি পারিবারিক আটককেন্দ্র পরিচালিত হয়। শুক্রবার (২৬ জুন) দুপুর নাগাদ পাওয়া এক পরিসংখ্যানকে উদ্ধৃত করে সিএনএন জানায়, অভিবাসন ও শুল্ক কার্যকর বিভাগের হেফাজতে থাকা মোট আটককৃতদের মধ্যে প্রায় ৮ হাজার ৮৫৮ জনের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে ৭৫১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করে অভিবাসীদের মুক্তি দেওয়ার জন্য বেশ কিছুদিন ধরেই দাবি জানিয়ে আসছে মানবাধিকার সংগঠনগুলো। এমন প্রেক্ষাপটে আটক অভিবাসী শিশুদের অবিলম্বে মুক্তি দেওয়ার নির্দেশ দিয়ে রুল জারি করেছেন ক্যালিফোর্নিয়ার ডিস্ট্রিক্ট কোর্টের ফেডারেল বিচারপতি। শুক্রবার আদালতের আদেশে বলা হয়, ৮ জুন নাগাদ ১২৪ জন শিশু অভিবাসন ও শুল্ক কার্যকর বিভাগের হেফাজতে আছে। ২০ দিনের বেশি সময় ধরে যারা ওইসব আটককেন্দ্রে আছে, তাদেরকে ১৭ জুলাই-এর মধ্যে মুক্ত করে দেওয়ার আদেশ দেওয়া হয়েছে।

রুলে আরও বলা হয়, শিশুদেরকে অবশ্যই তাদের মা-বাবার সঙ্গে মুক্তি দিতে হবে। আর তা নাহলে মা-বাবার অনুমতিক্রমে তাদেরকে উপযুক্ত স্পন্সর কিংবা কোভিড-১৯ মুক্ত কোনও আশ্রয়কেন্দ্রে তাদেরকে হস্তান্তর করতে হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য